Breaking News

টাকা পাচ্ছেন তো, টাকারে টাকা, কারা টাকা পাঠায়, খোঁজ পেয়েছি: ওবায়দুল কাদের

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে বিএনপির সমাবেশ শুরু করেছেন যেখানে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীদের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায় এদিকে বিএনপির সমাবেশ নিয়ে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের তিনি বলেন, ‘বিএনপি টাকার খেলা দেখিয়ে যাচ্ছে। এত টাকা কোথা থেকে আসছে খোজ নেওয়া হচ্ছে।’ এদিকে ক্ষমতাসীন দল আ.লীগও সমাবেশ করবে বলে ঘোষনা দিয়েছে।
বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল টাকার বস্তা নিয়ে শুয়ে আছেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ফখরুল এখন চাঙা হয়ে উঠেছেন। টাকা পাচ্ছেন তো। টাকারে টাকা! সংযুক্ত আরব আমিরাতের টাকা, দুবাইয়ের টাকা। এই তো এলো টাকা। ফখরুল মহাখুশি।

তিনি বলেন, টাকা পেলেই তার দল খুশি হয়। টাকা উড়ে আকাশে, বাতাসে; টাকা ওড়ে পাড়া-মহল্লায়। আমরা খবর নিচ্ছি। কে টাকা পাঠায়? খোঁজ পেয়েছি, ব্যবস্থা করা হবে।
ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘টাকার খেলা হবে না, জনগণের খেলা হবে’। ভোট চুরির বিরুদ্ধে, ভোট জালিয়াতির বিরুদ্ধে, দুর্নীতির বিরুদ্ধে খেলা হবে। যারা ১৭ কোটি মানুষের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলবে, তাদের বিরুদ্ধে খেলা হবে, প্রহসনের নির্বাচনের বিরুদ্ধে খেলা হবে।
শনিবার (২৯ অক্টোবর) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে (পুরাতন বাণিজ্য মেলা প্রাঙ্গণ) ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি স্বাধীনতার আদর্শকে গিলে ফেলেছে দাবি করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ক্ষমতায় এলে দেশকেও গিলে খাবে। সাবধান, বিএনপি থেকে সাবধান। ধনীদের বাড়ির সামনে লেখা থাকে ‘কুকুর থেকে সাবধান’। আমরা বলি, বিএনপি থেকে সাবধান।
রংপুরে বিএনপির সমাবেশ প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, রংপুরে জনসভা হচ্ছে। আপনারা কেউ কি জানেন? আপনারা কেউ জানেন? কত রঙ্গ দেখাইলারে জাদু, কত রঙ্গ দেখাইলা! রংপুরে রঙ্গ নাটক। তিন দিন আগে তারা উত্তরবঙ্গের বিভিন্ন জেলা থেকে রংপুরে এনে সব শোয়াইয়া রাখছে।। মঞ্চের সামনে শোয়ায়ে রাখছে। মঞ্চে শোয়ায়ে রাখছে। গুদামে, বাড়ির ছাদে শুয়ে আছে।

তিনি ফখরুলকে বলেন, রংপুরের ছবিও দেখেন। আপনারটাও দেখেন। আমাদেরটাও দেখেন। শেখ হাসিনা তো এখানে নেই। দেখাবো, পলো গ্রাউন্ডে দেখাবো। সেখানে ১০ লাখ মানুষের সমাগম হবে। শেখ হাসিনা যাবেন। আপনারা ১০ লাখ মুখে বলবেন, আমরা বাস্তবে দেখাবো। আপনাদেরটা বাস্তবে সত্য নয়।
ওবায়দুল কাদের বলেন, ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগ জিতবে, কেউ হারাতে পারবে না। বিএনপি কেন এত কিছু করছে জানেন? নির্বাচন হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে হেরে যাবে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। রেগে গেলে আরও হেরে যাবেন, আর রাগ কইরেন না।

জনগণ বিএনপিকে ভোট দেবে না দাবি করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, যতই নাচগান লাফালাফি করুক না কেন জনগণ তাদের সঙ্গে নেই। তারা কর্মীদের বোঝাচ্ছেন- ক্ষমতায় আসি আসি। এত আহ্লাদ! এত সুখ!
বিএনপি সহিং”/স আচরণ করছে দাবি করে তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, আপনাদের সাবধান হতে হবে না? দেখেন না কী রকম মারমুখো? মরণকামড় আর জীবনকামড়। যে কামড়ই দেন।
বিএনপিকে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি দেওয়ার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, মাথা থেকে তত্ত্বাবধায়কের ভূত দূরে রাখুন। সেটা আর হবে না। আদালত যাদুঘরে পাঠিয়েছে। এটাতে আমাদের দোষ নেই। আমরা নিষেধ করিনি। বিএনপি নির্বাচনে যাবে। গাধা জল ঘোলা করে খায়। সময় আসলে তবেই দেখা যাবে।

প্রসংগত, নির্বাচন যতই এগিয়ে আসছে রাজনৈতিক দলগুলো ততই সক্রিয় হয়ে উঠছে। বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন করতে বিএনপির আন্দোলন চালিয়ে যাবে এবং তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন হবে। বিএনপিকে পরাজিত করার বিষয়েও মন্তব্য করেছেন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক। এদিকে অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলো আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে দলকে শক্তিশালী করতে নেতাকর্মীদের আহ্বান জানিয়েছেন।

Check Also

স্কুলে ডেকে এনে প্রেমিককে জাপটে ধরে রোমান্সে মাতলেন ছাত্রী, এলাকাজুড়ে হইচই

সিনেমায় রোমান্টিক দৃশ্য হরহামেশাই দেখা যায়, যে সময় প্রেমিক প্রেমিকার মনেও রোমান্স জাগে। এটাই স্বাভাবিক। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.