যুবলীগের সম্মেলনে ১৪৪ ধারা করায় ইউএনওর বাসায় বোমা হামলা

32

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে উপজেলা যুবলীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে সৃষ্ট উত্তেজনার পরিপ্রেক্ষিতে সেখানে ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন। এর পর পরই বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করেন। এ সময় ইউএনওর বাসায় কে বা কারা পেট্রলবোমা হামলা করে। 

ইউএনও মর্জিনা আক্তার আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে এনটিভি অনলাইনকে বলেন, দুপুরে উপজেলা সদরের বঙ্গবন্ধু চত্বরে উপজেলা যুবলীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু দুই পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে এ নিয়ে কয়েক দিন ধরেই উত্তেজনা বিরাজ করছে। যেকোনো ধরনের বিরূপ পরিস্থিতি মোকাবিলার আশঙ্কায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। ‘আজ দুপুর ১২টা থেকে পরবর্তী সময়ে পরিস্থিতি শান্ত না হওয়া পর্যন্ত এই ১৪৪ ধারা বলবৎ থাকবে।’ বাসায় পেট্রলবোমা হামলার ব্যাপারে ইউএনও বলেন, এ সময় তিনি কার্যালয়ে ছিলেন। বাসায় জানালার কাচ ভেঙে গেছে। বাসায় তাঁর আড়াই বছরের শিশুসন্তান ফাইয়াজ মাহমুদ মাহির ছিল। সে আতঙ্কিত হয়ে পড়ে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ আলামত সংগ্রহ করেছে।  যুবলীগের দুই পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে গৌরীপুরে অতিরিক্ত পুলিশ ও র‍্যাব মোতায়েন করা হয়েছে। যুবলীগের নেতাকর্মীরা জানান, উপজেলা যুবলীগের বর্তমান সভাপতি সানাউল হক ও সাধারণ সম্পাদক ইকবাল আহসান আজাদ লিটনের সমর্থকদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরেই নেতৃত্ব নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছে। এ সম্মেলনে সানাউল হক পুনরায় সভাপতি পদে প্রার্থী হন, অপরদিকে  ইকবাল আহসান আজাদ লিটনও প্রার্থী হন। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধ তুঙ্গে ওঠে।কিন্তু ১৪৪ ধারা জারির উভয় পক্ষের নেতাকর্মীরাই বিরোধিতা করেছেন।