প্রতিবন্ধী ছেলেকে হত্যার পর বাবার আত্মহত্যার চেষ্টা!

6

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আজ শুক্রবার রাতে হাবিবুর রহমান নেওয়া হয়। পরে তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। ছবি : এনটিভি
ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ায় প্রতিবন্ধী ছেলেকে ছুরি দিয়ে গলা কেটে হত্যার পর নিজের গলায় ছুরি চালিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন এক বাবা। গুরুতর আহত অবস্থায় বাবা হাবিবুর রহমানকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিতে বলেছেন চিকিৎসকরা।

আজ শুক্রবার রাত ৮টার দিকে ফুলবাড়িয়া উপজেলার বাকতা তালতলা গ্রামে এই ঘটনা ঘটে।

নিহত ছেলে রিয়াদের (৬) লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। ফুলবাড়িয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল খায়ের এই খবর নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মী ও ফুলবাড়িয়া পুলিশ স্থানীয় অধিবাসীদের বরাত দিয়ে জানায়, বাকতা তালতলা গ্রামের বাসিন্দা হাবিবুর রহমান একজন কৃষক। তাঁর ছেলে রিয়াদ প্রতিবন্ধী। কয়েকদিন আগে রিয়াদের মা লাকি আক্তার স্বামীর সঙ্গে ঝগড়া করে বাবার বাড়ি চলে যান। প্রতিবন্ধী ছেলের লালনপালন করা নিয়ে সমস্যা দেখা দেওয়ায় আজ রাত ৮টার দিকে ছেলের গলায় ছুরি চালান বাবা হাবিবুর। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যায় রিয়াদ। পরে নিজের গলায় নিজেই ছুরি চালান তিনি।

খবর পেয়ে স্থানীয়রা হাবিবুরকে প্রথমে ফুলবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। পরে তাঁকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। পরে তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিতে বলেন চিকিৎসকরা।