পাখি শিকারে চেয়ারম্যান, গুলি লাগলো কৃষকের চোখে

4

নীলফামারীর জলঢাকায় পাখি শিকারে গিয়ে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানের ছোড়া গুলিতে আহত হয়েছেন এক কৃষক।
শনিবার দুপুরে উপজেলার গোলনা ইউনিয়নের দলবাড়ি বিলে এ ঘটনা ঘটে বলে জলঢাকা থানার ওসি মোস্তাফিজার রহমান জানান।

আহত দুলাল চন্দ্র রায়কে (২৬) রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি উপজেলার গোলনা ইউনিয়নের তালুক গোলনা গ্রামের যতীন্দ্র নাথ রায়ের ছেলে।

এ ঘটনায় উপজেলার কাঁঠালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন তুহিনের সঙ্গে যোগযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

তুহিন জলঢাকা উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক।

দুলালের বাবা যতীন্দ্র নাথ রায় বলেন, বেলা আড়াইটার দিকে দলবাড়ি বিলে বন্দুক দিয়ে পাখি শিকারে আসেন কাঁঠালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন তুহিন। বিভিন্ন প্রজাতির শীতের একঝাঁক পাখিকে লক্ষ্য করে তিনি বন্দুক দিয়ে গুলি ছুড়তে থাকলে একটি গুলি পাশের জমিতে ধান কাটাতে থাকা দুলালের বাম চোখে বিদ্ধ হয়।

“এক সহযোগীর সহায়তায় চেয়ারম্যান ছেলেকে মাইক্রোবাসে করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেছে বলে লোক মুখে শুনেছি।”

এ বিষয়ে গোলনা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল আলম কবির বলেন, “দেশের সকল স্থানে পাখি শিকার নিষিদ্ধ। তারপরেও চেয়ারম্যান তুহিন কীভাবে শিকারে আসেন আমার জানা নেই।”

ঘটনাস্থলে থাকা জলঢাকা থানার এসআই আসলাম হোসেন বলেন, “দুলালের বাম চোখে গুলি লেগেছে। গুলিবিদ্ধ দুলালকে চেয়ারম্যান নিজেই উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেছেন বলে এলাকাবাসী আমাদেরকে জানিয়েছে।”

ঘটনাস্থল থেকে চেয়ারম্যান তুহিনের ব্যবহৃত নম্বর প্লেটবিহীন একটি মোটরসাইকেল জব্দ করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে বলে জানান তিনি।