ঠাকুরগাঁওয়ে সেতু ভেঙ্গে নদীতে, দুর্ভোগে মানুষ

3

ঠাকুরগাঁওয়ে সেতু ভেঙ্গে নদীতে, দুর্ভোগে মানুষ   ঠাকুরগাঁওয়ের সেনুয়া বেইলি ব্রিজটি মালবাহী ট্রাকসহ নদীতে ভেঙ্গে পড়ায় লক্ষাধিক মানুষের শহরের সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা বিচ্ছিন্ন পড়েছে। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থী, চাকুরীজীবীসহ বিভিন্ন পেশার মানুষ।   অপরদিকে স্থানীয় প্রশাসন সাধারণ মানুষের যাতায়াতের জন্য একটি বাঁশের সাঁকো নির্মাণ করেছে কিন্তু এলাকার কিছু বখাটে যুবক পারাপারের নামে টাকা নিচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে প্রশাসনের উদাসীনতাকে দায়ী করছে পথচারী ও সাধারণ মানুষ।  

কলেজশিক্ষক খোদা বকস ডাবলু বলেন, দীর্ঘদিন ধরে এলাকার মানুষ ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজটি সংস্কারের দাবি করলেও কর্তৃপক্ষ নজরে নেননি। ফলে অবহেলার মধ্য দিয়ে সাধারণ মানুষ যাতায়াত করতে বাধ্য হচ্ছিলো। অবশেষে ভারী যান চলাচল নিষেধ থাকা সত্ত্বেও, একটি কয়লা বোঝাই ট্রাক উল্টে ব্রিজসহ নদীতে পড়ে যায়। আমরা দ্রুত ব্রিজ মেরামত ও বিকল্প যাতায়াতের ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানাচ্ছি।   মহসীন আলী নামে এক ব্যবসায়ী জানান, প্রায় ১০টি ইউনিয়নের মানুষের একমাত্র যোগাযোগের মাধ্যম ছিল এই ব্রিজটি। ওইসব এলাকা থেকে প্রতিদিন সবজিসহ বিভিন্ন পণ্য শহরে আসে। ব্রিজটি ভেঙ্গে পড়ায় ব্যবসাসহ নানা রকম ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছে মানুষ। ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সন্ধ্যায় ঝুঁকিপূর্ণ সেনুয়া বেইলি ব্রিজটি দিয়ে একটি কয়লা বোঝাই ট্রাক ফাঁড়াবাড়ি এলাকার দিকে যাওয়ার চেষ্টা করলে ব্রিজের উত্তর পাশের অংশ ট্রাকসহ ভেঙ্গে নদীতে পড়ে। ব্রিজটি পারাপারের সময় একজন পথচারী আহত হন।  

ঠাকুরগাঁও এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী কান্তেশ্বর বর্মন জানান, সেনুয়া বেইলি ব্রিজটি অনেকদিন আগেই ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করা হয়েছে। তবুও ওই ব্রিজটি দিয়ে ভারী যানবাহন চলাচল করছিল। ফলে ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজটি ভেঙ্গে পড়ে। ব্রিজ মেরামতের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে। দ্রুত ব্রিজ মেরামত করে যান চলাচলের জন্য স্বাভাবিক করা হবে বলে আশা প্রকাশ করেন।   জেলা প্রশাসক আব্দুল আওয়াল বলেন, আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ব্রিজটি ভেঙ্গে যাওয়ায় অনেক মানুষের অসুবিধা হয়েছে। তা মেরামতের জন্য দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তিনদিনের মধ্যেই পাশেই একটি বিকল্প ব্রিজ নির্মাণে পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এছাড়া নতুন ব্রিজ নির্মাণের জন্য ইতিপূর্বে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।   ইত্তেফাক/আরকেজি