গুজরাটে চেয়ারই ভরল না মোদির সভায়

6

এই গুজরাট থেকেই উত্থান ঘটেছিলো নরেন্দ্র মোদির। এখানকার জোয়ারই সারা ভারতে ছড়িয়ে দিয়েছিলো বিজেবি। গড়েছিলো কেন্দ্রীয় সরকার। ভারতের রাজনীতিতে অনেকটাই ‘কোণঠাসা’ কংগ্রেস। আর ২২ বছর পর এই রাজ্যে পরিবর্তনের ইঙ্গিতেই ফের আশায় বুক বাধছে তারা।

গত সোমবার গুজরাটে সভা করেছেন নরেন্দ্র মোদি। অথচ চেয়ার ভরাতে পারছে না বিজেপি। নিজের রাজ্যেই কি তবে ফিকে হচ্ছে মোদি ম্যাজিক? সৌরাষ্ট্রের জসদনে ছিলো মোদির সভা। ওই সভায় ১২,০০০ চেয়ার রাখা হয়েছিল। তবে প্রায় ৮০০ চেয়ারে লোক ভরাতে ব্যর্থ হয়েছে গেরুয়া শিবির। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে সেই ছবি। ওই সভায় পাঁচটি বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থীদের হয়ে প্রচার করেছেন নরেন্দ্র মোদী। এমনটা খবরই দিয়েছে ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যম।

তবে এ বিষয়ে বিজেপির বক্তব্য, প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তার জন্য অনেক লোককে আটকে দিয়েছে এসজিপিজি। দেশলাই, সিগারেট বা তামাকজাতীয় দ্রব্য নিয়ে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। তাঁরা বাইরেই দাঁড়িয়ে ছিলেন। তবে শুধু জসদনে নয়, পরের সভাগুলিতেও কমবেশি একই হাল ছিল। প্রথম দুটি সভার পর ধারির সভায় ৪০,০০০ চেয়ার কমিয়ে ২০,০০০ করা হয় বলে খবর। তাও বিজেপি লোক ভরাতে পারেনি বলে দাবি কংগ্রেসের।

কংগ্রেসের বক্তব্য, হাওয়া বেগতিক তা টের পেয়েছেন মোদী। আর সেজন্যই নিজেকে গুজরাটের সন্তান দাবি করে ভাবাবেগের রাজনীতি করছেন। বুধবারই হার্দিক প্যাটেল খোঁচা দিয়েছিলেন, ভোটে জিততে প্রধানমন্ত্রী কাঁদতেও পারেন।