বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আবুল খানের জয়, ডোনার হার

146

টানা তৃতীয় বারের মতো যুক্তরাষ্ট্রের নিউ হ্যাম্পশায়ার অঙ্গরাজ্যের হাউজ অফ রিপ্রেজেনটেটিভসের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রিপাবলিকান পার্টির নেতা আবুল বি খান। অন্যদিকে টেক্সাসের ডিস্ট্রিক্ট ৩১ থেকে হেরেছেন আরেক বাংলাদেশি-আমেরিকান ডোনা ইমাম।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেইসবুকে আবুল জয়ের বিষয়টি জানিয়েছেন। স্ট্যাটাসে নির্বাচনে ভোট দেয়া এবং ভোটের আগে প্রচারণায় সাহায্য করার জন্য তিনি শহরের বাসিন্দাদের ধন্যবাদ জানান তিনি।নিজ নিজ বাসা-বাড়ি বা প্রতিষ্ঠানে নির্বাচনী প্রচারণার ব্যানার সংরক্ষণ করার জন্য কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেন তিনি।

নাগরিকদের পক্ষ থেকে শহরের বিভিন্ন বিষয় হাউজে তুলে ধরার আশাবাদ ব্যক্ত করেন আবুল বি খান। সবাইকে নিয়ে একসঙ্গে কাজ করার অঙ্গীকারও করেন তিনি।
মঙ্গলবার সকালে শুরু হয় বহুল আলোচিত এবারের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। করোনা মহামারির কারণে রেকর্ডসংখ্যক পোস্টাল ভোট পড়ে এবার।

ডোনা হেরেছেন বর্ষীয়ান রিপাবলিকান রাজনীতিবিদ জন কার্টারের কাছে। কার্টার ২ লাখের বেশি ভোট পেয়েছেন। সেখানে ডোনা পেয়েছেন প্রায় পৌনে দুই লাখ।

মার্কিন নির্বাচনে এবার পাঁচজন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত রাজনীতিবিদ অংশ নিয়েছেন। টেক্সাসের অস্টিন থেকে যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসে একমাত্র বাংলাদেশি প্রতিদ্বন্দ্বী ডেমোক্রেটিক দলের প্রার্থী ছিলেন এই ডোনা ইমাম। জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের স্টেট সিনেটর শেখ রহমান, নিউ হ্যাম্পশায়ার অঙ্গরাজ্যের হাউজ অব রিপ্রেজেনটেটিভ আবুল বি. খান ও পেনসিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের অডিটর জেনারেল পদপ্রার্থী ও সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার উপদেষ্টা ড. নীনা আহমেদ।

এ ছাড়া রয়েছেন ড. এমডি রাব্বি আলম মিশিগান স্টেট থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে হাউস অব রিপ্রেজেনটেটিভ পদে।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত পাওয়া ফলাফলে দেখা গেছে, নীনা আহমেদ বেশ পিছিয়ে রয়েছেন।