‘আল্লাহ’ উচ্চারণ, পুলিশ ডাকলো শিক্ষক!

6
স্টাফ রিপোর্টার:ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষণার পর পদবঞ্চিতদের উপর মধুর ক্যান্টিনে সেদিনের হামলার ঘটনায় আহত হয়েছিলেন বেশ কয়েকজন নারী কর্মী। এদের মধ্যে গুরুতর আহত হন ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যকরী সদস্য জারিন দিয়া। তার কোমরের হাড় ভেঙে গেছে বলে জানান তিনি। বৃহস্পতিবার রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে এ তথ্য জানান ছাত্রলীগ নেত্রী দিয়া।

ডাউন সিনড্রোমসহ আক্রান্ত ছয় বছর বয়সী মুসলিম একটি ছেলে স্কুলের ক্লাসে কয়েকবার ‘আল্লাহ’ এবং ‘বুম’ শব্দ উচ্চারণ করে। এরপর ভয় পেয়ে পুলিশকে ডাকে ক্লাসে থাকা শিক্ষক। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসের পিয়ারল্যান্ডের একটি স্কুলে। বেশ কয়েকটি মার্কিন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে এ খবরটি।

জন্মগতভাবে ডাউন সিনড্রোমসহ বিভিন্ন জটিল মানসিক সমস্যায় আক্রান্ত ছয় বছর বয়সী মোহাম্মদ সুলেইমান জানান তার পিতা।

সুলেমান এর পিতা বলেন, আমার ছেলের নিয়মিত শিক্ষকের অনুপস্থিতিতে একজন অনিয়মিত শিক্ষক এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন।

ইন্ডিপেন্ডেন্ট রিপোর্ট জানায়, ওই শিক্ষক জানিয়েছেন মোহাম্মদ কথা বলতে সমর্থ। কিন্তু তার পিতা জানিয়েছেন সুলেইমান এক বছরের শিশু মত। সে কথা বলতেও পারেনা। শিশুটির পিতা আরো দাবি করেন, সুলেইমানকে টেররিস্ট বলা বোকামি। আসলে এটা একধরণের বৈষম্য। শতভাগ বৈষম্য।

এই ব্যাপারে তদন্ত শেষ করার পর পরবর্তী কোনো পদক্ষেপ নেয়ার প্রয়োজন নেই বলে জানিয়েছে পিয়ারল্যান্ড পুলিশ। তবে, প্রাদেশিক শিশু সুরক্ষা সার্ভিস ডিপার্টমেন্ট এই বিষয়ে তদন্ত করছে।