মা-মে’য়েকে ধ’র্ষণ ও ভিডিও ধারণ

103

সিলেটের জৈন্তাপুরে মা-মে’য়েকে ধ’র্ষণ ও মু’ঠোফোনে ধ’র্ষণের ভিডিও চিত্র ধা’রণ করে তা ছ’ড়িয়েদেওয়ার অ’ভিযোগে এক যুবককে গ্রে’প্তার করেছে পুলিশ। গত বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে নিমার আহমদ (২৮)

নামের ওই যুবককে গ্রে’প্তার করা হয়। জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সফিউল কবির জানান, ধ’রা প’ড়ার পর নিমার ঘটনার কথা স্বী’কার করেছেন।

তাঁর মু’ঠোফোনে ২৫টি ভিডিও চি’ত্র পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় পুলিশ বা’দী হয়ে ধ’র্ষণ ও প’র্নোগ্রাফি আ’ইনে আজ শুক্রবার মা’মলা করেছে। আদালতে স্বী’কারোক্তিমূলক জ’বানবন্দি

দিতে স’ম্মত হওয়ায় সন্ধ্যায় নিমারকে আ’দালতে পাঠানো হয়েছে। পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, নিমার আহমদ পেশায় রা’জমিস্ত্রি। একই এলাকার এক গৃ’হবধূর সঙ্গে তাঁর প্রে’মের স’ম্পর্কে গড়ে ওঠে।

ওই না’রীর সঙ্গে প্রায় ছয় মাসের বিভিন্ন সময়ে প্রায় ২০ বার শা’রীরিক স’ম্পর্কের ভিডিও নিমারের মু’ঠোফোনে পাওয়া গেছে। ওই না’রীর কি’শোরী মে’য়ের সঙ্গে শা’রীরিক স’ম্পর্কের আরও পাঁচটি ভিডিও চি’ত্র পাওয়া গেছে।

গত রোববার থেকে ওই ভিডিও চি’ত্রগুলো মু’ঠোফোনে ছ’ড়িয়ে পড়ার খবর পেয়ে নিমারকে শ’নাক্ত করে পুলিশ। বুধবার রাতে তাঁকে গ্রে’প্তার করা হয়। মা-মে’য়ের জ’বানবন্দি সং’গ্রহ করা হয়েছে জানিয়ে জৈন্তাপুর থানার পরিদর্শক (ত’দন্ত) মো. জাহিদ আনোয়ার বলেন,

ঘটনার শি’কার ওই না’রীর ভা’ষ্য, তাঁকে নে’শাজাতীয় দ্র’ব্য খাইয়ে প্রথম দ’ফায় ধ’র্ষণ ও ধ’র্ষণের ভিডিও চি’ত্র ধা’রণ করেন নিমার। পরে ওই ভিডিও চিত্র দেখিয়ে এবং তা ছ’ড়িয়ে দেওয়ার ভ’য় দেখিয়ে প্রায় ছয় মাসে নিমার তাঁকে এ’কাধিকবার ধ’র্ষণ করেন। পরে তাঁর মে’য়েকে নিমার এ’কইভাবে ধ’র্ষণ করে ভিডিও চি’ত্র ধারণ করেন।

Loading...