চীনের বিপুল সেনা সীমান্ত পেরিয়েছে: ভারতীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী

311

লাদাখে চীনা বাহিনীর অনুপ্রবেশ নিয়ে প্রায় দুই সপ্তাহ লুকোচুরির পর অবশেষে ভারতীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং স্বীকার করেছেন, চীনের পিপল’স লিবারেশন আর্মির (পিএলএ) বিপুল সংখ্যক সদস্য চূড়ান্ত নিয়ন্ত্রণ রেখা (এলএসি) পেরিয়েছে।

মঙ্গলবার একটি টেলিভিশন চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ভারতীয় মন্ত্রী বলেন, ‘এটা সত্য যে এলএসিতে চীনা সেনা আছে। সীমান্ত কোথায় তা নিয়ে দুই পক্ষেরই মতপার্থক্য রয়েছে। আর সেখানে বিপুল সংখ্যক চীনা সৈন্য পৌঁছে গেছে।’

‘এমন পরিস্থিতিতে যা করা দরকার ভারত তা করছে’ বললেও ঠিক কী ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে তা জানাননি রাজনাথ সিং।

সূত্রের বরাতে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড জানিয়েছে, সীমান্তে চীনের সেনা সমাবেশের জবাবে উত্তরাঞ্চলীয় লাদাখের গালোয়ান উপত্যকা ও মধ্যাঞ্চলীয় লাদাখের প্যানগং লেকের কাছে বাড়তি সেনা মোতায়েন করেছে ভারত। ওই অঞ্চলে অন্তত পাঁচ হাজার পিএলএ সেনা জড়ো করা হয়েছে এবং নিজেদের অবস্থান দৃঢ় করতে তারা রাস্তা ও কংক্রিটের বাঙ্কার তৈরি করছে। তবে চীনা বাহিনীর ওপর কোনও ধরনের আক্রমণ বা উস্কানি দিয়ে পরিস্থিতি আরও উত্তপ্ত করতে নিষেধ করা হয়েছে ভারতীয় সেনাদের।

ভারতীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রীর বিশ্বাস, ২০১৭ সালে ডোকলাম সীমান্তে সৃষ্ট উত্তেজনার মতো এবারও দুই দেশের শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তাদের মধ্যে আলোচনা এবং নয়া দিল্লি-বেইজিংয়ের মধ্যে কূটনৈতিক তৎপরতা বৃদ্ধির মাধ্যমেই সংকটের সমাধান সম্ভব।

রাজনাথ সিং বলেন, ‘বর্তমান পরিস্থিতিতে সেনাবাহিনীর মধ্যে আলোচনা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আগামী ৬ জুন শীর্ষ সামরিক কর্মকর্তাদের মধ্যে বৈঠকের সম্ভাবনা রয়েছে। এ বিষয়ে (ভারতীয়) সেনাপ্রধানের সঙ্গে কথা হয়েছে।’

Loading...