গরুর শোকে আত্মহত্যাচেষ্টা, গরু পাওয়া গেল মেম্বারের বাড়ি

59

গরু চুরি অথবা হারিয়ে যাওয়াকে কেন্দ্র করে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে বাগেরহাটের কচুয়া উপজেলায়। গরুর শোকে হিরণ শেখ (২৮) কীটনাশক পানে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। তিনি বাগেরহাট সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ওদিকে রবিবার স্থানীয় ইউপি মেম্বারের বাড়ি থেকে পুলিশ উদ্ধার করেছে সেই গরু।

ধোপাখালী ইউনিয়নের ঝালডাঙ্গা গ্রামের নজু শেখের ছেলে হিরণ শেখ জানান, গত শুক্রবার দিবাগত রাত ২টার দিকে তাদের গোয়ালঘর থেকে সবচেয়ে বড় গরুটি চুরি হয়। পরদিন শনিবার আশপাশে খুঁজেও গরু না পেয়ে মনোকষ্টে বিকালের দিকে বাড়িতে থাকা কীটনাশক পান করে তিনি আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। পরিবারের লোকেরা দ্রুত তাকে উদ্ধার করে বাগেরহাট সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করেন। সেখানে তার চিকিৎসা চলছে।

এদিকে হিরণের চাচা হায়দার শেখ গরু চুরির বিষয়ে কচুয়া থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। পুলিশ গরু খোঁজা শুরু করে।

কচুয়া উপজেলার গজালিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মো. মনিরুল ইসলাম জানান, রবিবার ধোপাখালী ইউনিয়নের ছয় নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য রকিব খানের বাড়িতে গরুটি পাওয়া যায়। উদ্ধারকৃত গরু প্রকৃত মালিকদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। কামারগাতী বাজার হতে লিটু শেখের কাছ থেকে মেম্বার রকিব খান ৫৬ হাজার টাকায় গরুটি কিনেছিলেন। গরুটি চুরি হয়নি, দুই ভাইয়ের দ্বন্দ্বের প্রেক্ষিতে এক ভাই গরুটি বিক্রি করে দিয়েছিল।

ইউপি সদস্য রকিব খান জানান, তিনি যার কাছ থেকে গরুটি কিনেছিলেন তার চাচা থানায় অভিযোগ করেছে। পুলিশ এসে গরুটি নিয়ে তাদের ফেরত দিয়েছে।

Loading...