ভারতের কারাগারে কুরআন তিলাওয়াতের কারেণ বেঁচে ছিলেন : জানালেন ফারুক আব্দুল্লাহ

468

২০১৯ সালের আগস্টে ভারতের সংবিধান থেকে কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল উগ্র হিন্দুত্ববাদী বিজেপি সরকার। বাতিলের পরপরই উপত্যকাটি শুরু করে ভয়াবহ দমনপীড়ন। সেসময় রাজনৈতিক নেতাদের থেকে শুরু করে স্বাধীনতাকামীদের আটক করে রাখে ভারতের নির্মম কারাগারে। শুরু করে উপত্যকায় এক নতুন যজ্ঞ।

সেবছরের ৫ আগস্ট থেকে কয়েক মাস ধরে ভারতের নির্মম কারাগারে বন্দি করে রাখা হয়েছে কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ও ন্যাশনাল কনফারেন্স (এনসি) এর সভাপতি ফারুক আবদুল্লাহকেও।

সংবাদমাধ্যম দি হিন্দুকে এক সাক্ষাতকারে তিনি বন্দি জীবনের স্মৃতিচারণ করে বলেন, আমার সাথে অপরাধীর মতো আচরণ করা হয়েছে। আমাকে চোর বলা হয়েছে, কঠোর আইন প্রয়োগ করা হয়েছে। যেন আমি সন্ত্রাসী। আমি একজন এমপি, অথচ ফোনও দেওয়া হয়নি। মনে হয়েছে, সন্ত্রাসী হলে বোধহয় বেশি সুবিধা পেতাম।

তিনি বলেন, বন্দী সময়ে দরজায় তার মেয়েকে পড়ে যেতে দেখাটা ছিল তার জীবনের দ্বিতীয় সবচেয়ে কঠিন মুহূর্ত।

ড. ফারুক আব্দুল্লাহ বলেন, চিকিৎসার জন্য আমাদেরকে কয়েক দিন ডাক্তারের কাছে যেতে হয়েছিল। তা ছিল সবচেয়ে মর্মান্তিক ঘটনা। আমাকে সব কিছু বহন করতে হতো। কারাগারে কুরআনের কারণেই আমি বেঁচে আছি। আমি প্রতিদিন কুরআন তিলাওয়াত করি।

সূত্র: দি হিন্দু