পাকিস্তানকে সন্ত্রাসী রাষ্ট্র ও জামায়াতকে সন্ত্রাসী সংগঠন ঘোষণার দাবি শাহরিয়ার কবিরের

476

আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রবল জনমত সৃষ্টির মাধ্যমে পাকিস্তানকে সন্ত্রাসী রাষ্ট্র এবং জামায়াতে ইসলামীকে সন্ত্রাসী সংগঠনের তালিকাভুক্ত করার দাবি জানিয়েছেন একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির।

আজ বৃহস্পতিবার ভারতের মুম্বাইয়ে জঙ্গি সন্ত্রাসী হামলার ১২তম বার্ষিকী স্মরণে ‘উপমহাদেশে ইসলামের নামে জঙ্গি সন্ত্রাসের গডফাদার পাকিস্তান’ শিরোনামে এক আন্তর্জাতিক ওয়েবিনারে তিনি এ দাবি জানান। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বসবাস করা ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সদস্যরা এই ওয়েবিনারে অংশগ্রহণ করেন।

শাহরিয়ার কবির বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নৃশংস হত্যাকাণ্ড থেকে আরম্ভ করে গত ৪০ বছরে বিভিন্ন হত্যা ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জামায়াতে ইসলামী এবং পাকিস্তানের আইএসআইয়ের সম্পৃক্ততা রয়েছে। এখন সময় এসেছে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে প্রবল জনমত সৃষ্টি করার। যেন পাকিস্তানকে সন্ত্রাসী রাষ্ট্র এবং জামায়াতে ইসলামীকে সন্ত্রাসী সংগঠনের তালিকাভুক্ত করা হয়। নয়তো ধর্মের নামে জঙ্গি মৌলবাদী সন্ত্রাসী হামলা বার বার ঘটবে।

এক যুগ পার হলেও পাকিস্তান মুম্বাই বিস্ফোরণের কুশিলবদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি উল্লেখ করে তিনি বলেন, সেখানে বিচারের নামে চলছে প্রহসন। মুম্বাই হামলা পাকিস্তান সেনাবাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থা আইএসআইয়ের মদদেই হয়েছিল। যা এখন আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে স্পষ্ট।

হামলার মূল চক্রী লস্কর-ই-তৈয়েবার প্রধান হাফিজ সঈদ ও তার সঙ্গীদের স্বার্থ সুরক্ষিত রাখতে ইসলামাবাদ ব্যস্ত বলেও এ সময় মন্তব্য করেন ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি।

শিক্ষাবিদ অধ্যাপক মুহাম্মদ জাফর ইকবাল বলেন, তরুণ প্রজন্মকে বোঝাতে হবে যে, পাকিস্তান একটি সন্ত্রাসী রাষ্ট্র। তারা পবিত্র ইসলাম ধর্মকে ঢাল হিসেবে ব্যবহার করে ১৯৭১ সালে বাংলাদেশে গণহত্যা চালিয়েছিল।