‘আমার পা ধরে টেনে নিচ্ছে, আমাকে বাঁচাও’ বলতে বলতেই তলিয়ে গেল ছেলেটি

168

বগুড়ার শেরপুর করতোয়া নদীর হাঁটু পানিতে মাছ ধরতে গিয়ে রবিন হাসান (১৪) নামের এক স্কুলছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার গাড়িদহ ইউনিয়নে রামনগর দক্ষিণপাড়া করতোয়া নদীর ঘাটে এ ঘটনা ঘটে।
বৃহস্পতিবার সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য হামিদুর রহমান সরকার।
রবিন হামান রামনগর গ্রামের গোলাম রব্বানীর ছেলে ও গাড়ীদহ পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র।

এলাকাবাসী জানান, এখন বর্ষার মৌসুম তাই প্রতিবেশী চাঁনমিয়া, রঞ্জু মিয়া ও নাঈম হাসানসহ অনেকে করতোয়া নদীতে মাছ ধরতে যান। মাছ ধরতে ধরতে রামনগর দক্ষিণপাড়া করতোয়া নদীর ঘাটে পৌঁছালে রবিন হাসান চিৎকার করে বলেন, ‘আমার পা ধরে কে যেন টেনে নিয়ে যাচ্ছে, আমাকে বাঁচাও’। তখন চাঁনমিয়া রবিনের হাত ধরতেই নদীর গভীরে ডুবে যায়। এ সময় চাঁনমিয়া, রঞ্জু মিয়া ও নাঈম হাসান তাকে খুঁজতে থাকেন। কিছুক্ষণ পর একটু ভাটির দিকে রবিন হাসানের পা ভাসতে দেখে। তারা রবিন হাসানের পা ধরে নদীর কিনারায় তুলে। দ্রুত শেরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করে।

এলাকাবাসী মোস্তফা মাস্টার জানান, দীর্ঘ ৫ বছর ধরে বর্ষার মৌসুমে দক্ষিণপাড়া করতোয়া নদীর ঘাটে মাছ ধরতে গেলে এমন ঘটনা ঘটে।
উপজেলা মৎস্য অফিসার মো: মাসুদ রানা সরকার, এমন অলৌকিক ঘটনা মাঝে মধ্যে ঘটছে।