যৌতুক দিতে না পারায় স্ত্রীর খাবারে বিষ মিশিয়ে হত্যা চেষ্টা|

86

বোনের গায়ের রং কালো হওয়ায় বিয়ের দিনে ৬০ হাজার টাকা যৌতুক হিসেবে নেয় তারা। এরপর ৭ বছরের সংসার জীবনে পর্যায়ক্রমে দেয়া হয়েছে যৌতুকের আরও ৪৫ হাজার টাকা।

সম্প্রতি ৫০ হাজার টাকা যৌতুক ও একটি গরু কিনে দিতে না পারায় খাবারে বিষ মিশিয়ে হত্যা চেষ্টা করেছে স্বামীসহ শ্বশুর বাড়ির লোকজন। গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে আবেগাপ্লুত হয়ে কথা গুলো বলছিলেন সাতক্ষীরার শ্যামনগরের ধুমঘাট এলাকার সাইফুল ইসলাম নামে অসহায় এক ভাই।

তিনি আরও জানান, পারিবারিকভাবে প্রায় ৭ বছর আগে কালিগঞ্জের মৌতলা ইউনিয়নের লক্ষ্মীনাথ পুর এলাকার মৃত নুর আলী সরদারের ছেলে নজরুল ইসলাম সরদারের সাথে আমার বোন মর্জিনা খাতুনের বিয়ে হয়।

তাদের ঘরে ৫ বছর বয়সী একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। কিন্তু দুঃখের বিষয় আমার বোনকে নানান অযুহাতে তার স্বামী ও শাশুড়ি বিভিন্ন সময় নির্যাতন করতে থাকে। এক পর্যায়ে চাপ দেয় আরও যৌতুকের টাকার জন্য।

গত আগস্ট মাসে আমার ভগ্নপতি বোন মর্জিনাকে নির্যাতন করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়। আমাদের বাড়িতে ২০-২৫ দিন থেকে চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হলে গত বৃহস্পতিবার (০২ সেপ্টেম্বর) আমার বোনকে তার স্বামী এসে নিয়ে যায়।

ওইদিন রাতেই আমার বোনকে হত্যার উদ্দেশ্যে তার স্বামী, শাশুড়ি ও ননদ খাবারের সাথে জোরপূর্বক বিষ খাইয়ে দেয়।
পরবর্তীতে স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে দ্রুত আমার বোনকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করি। বর্তমানে তার অবস্থা সংকটাপন্ন বলে জানান তিনি।

ভুক্তভোগী গৃহবধূর পিতা মুজিবুর গাজী জানান, আমার মেয়েকে হত্যার চেষ্টা করে উল্টো আমার মেয়ের বিরুদ্ধে তারা থানায় অভিযোগ করেছে। পুলিশ এসে তার মেয়ের কাছ থেকে সব শুনে গেছে বলে জানান তিনি।

কালিগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা জানান, এখনও অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এদিকে অভিযুক্ত স্বামী নজরুল ইসলাম সরদারের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি কৌশলে বিষয়টি এড়িয়ে যান।