হযরত ওমরের মত মানুষের সেবক হতে চাই: প্রাণ গোপাল দত্ত

430

সব জল্পনা কল্পনা সত্য করে কুমিল্লা-৭ আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন অধ্যাপক প্রাণ গোপাল দত্ত। দলীয় সভায় মনোনয়ন নিশ্চিত হবার পরেই নতুন করে সামনে এসেছে তার এক বক্তব্য। ২০১৮ সালে একাদশ জাতীয় নির্বাচনের আগে এই আসনেই মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রাণ গোপাল দত্ত বলেছিলেন, হযরত ওমর রাযিআল্লাহু রাতের বেলা বের হয়ে যেভাবে মানুষের খবর নিতেন আমিও সেভাবে মানুষের খবর নিতে চাই।

সেবড় নিজ এলাকা চান্দিনায় নির্বাচনকে সামনে রেখে এক আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন। যদিও আওয়ামী লীগের সিনিয়ার নেতা অধ্যাপক আলী আশরাফকেই পরবর্তীতে মনোনয়ন দেয়া হয়। তবে আলী আশরাফ মারা যাবার পর সেই প্রাণ গোপালেই আস্থা রাখছে ক্ষমতাসীন দল।

ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত বলেছিলেন, আমি চাই সত্যিকারভাবে ভোট দিয়ে আপনারা আমাকে নির্বাচিত করবেন। তাহলে আমি এমপি হবো। বড় গলায় সাহস করে আপনাদের জন্য কথা বলবো। সারা পৃথিবীতে এ এলাকার মানুষের খবর যাবে যে, বাংলাদেশের একটা এলাকাতেও যদি সঠিক নির্বাচন হয় তাহলে সেটা চান্দিনাতে হয়েছে। যখন ফজরের আজান দেয় তখন আমি কাজে বের হই, আর ফিরে আসি রাত এগারোটার পর।

ইসলামের দ্বিতীয় খলিফা হযরত ওমরের উদাহরণ টেনে তিনি বলেছিলেন, হযরত ওমর রাযিআল্লাহু যেভাবে রাতের বেলা বের হয়ে মানুষের খবর নিতেন আমিও সেভাবে মানুষের খবর নিতে চাই। আমার সপ্তাহে তিনদিন চেম্বার বন্ধ থাকে। এই দিনগুলোতে আমি মানুষের ঘরে ঘরে যাই। তাদের দুঃখ দুর্দশার খবর নিই। আমি যদি দশটার সময় ঢাকা থেকে বের হয়ে ১২টার দিকেও এলাকায় আসি, কোন ঘরে রান্না হয়েছে, কার ঘরে ক্ষুদার যন্ত্রণায় কেউ চটপট করছে সেটা আমি দেখতে পাবো। এলাকার মানুষের এসব সমস্যাগুলো যদি সমাধা হয় তাহলে কিন্তু আর কোনো অশান্তি থাকবে না। তাই মানুষের পাশে দাঁড়াতে আমি আপনাদের সহযোগিতা কামনা করি।
মুসলমান ভোটারদের উদ্দেশ্যে ডা. প্রাণ গোপাল সেই বক্তব্যে বলেন, আপনাদের কাছে আমার একটাই চাওয়া; আপনারা স্বীয় ধর্মমতে নামাজ পড়ে আল্লাহর কাছে আমার জন্য দোয়া করবেন, আমাকে যেন আল্লাহ হায়াত দেন। বাকি জীবন আমি যেন মানুষের সেবায় নিয়োজিত থাকতে পারি।

একাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে এসব কথা বললেও অবশ্য বাস্তবায়ন করার সুযোগ আসেনি দেশের খ্যাতিমান এই ডাক্তারের সামনে। তবে এবার ঠিক কতখানি করতে পারেন সেটিই দেখার অপেক্ষায় চান্দিনাবাসী।