আ’লীগ প্রার্থীর বিরুদ্ধে সড়কে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ

44

মাদারীপুরের কালকিনি চর দৌলত খান (সিডি খান) ইউনিয়নে আ’লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. চাঁন মিয়া সিকদারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল করেছে স্থানীয় আ’লীগের নেতা-কর্মী। এসময় ভূরঘাটা-মোল্লারহাট সড়কের বটতলা মোড়ের সড়কে ঘন্টাব্যাপি টায়ার জ্বালিয়ে অবোরোধ করে পথসভা করেন বিক্ষুদ্ধরা। সোমবার সন্ধ্যায় এক দফা ও মঙ্গলবার সকালে আরেক দফা আন্দোলনে নামে বিক্ষুদ্ধরা। এ ঘটনায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, আগামী ১১ নভেম্বর মাদারীপুরের কালকিনি উপজেলার ১৩ ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এরই মধ্যে কেন্দ্রীয় আ’লীগ থেকে দলীয় মনোনীত প্রার্থীদের নামের তালিকা প্রকাশ করেছে। এরমধ্যে সিডি খান ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন পান বর্তমান চেয়ারম্যান মো. চাঁদ মিয়া শিকদার। তার বিরোধিতায় মাঠে নামেন ইউনিয়ন আ’লীগের একটি বৃহৎ অংশ। শুরু হয় প্রতিবাদসহ বিক্ষোভ সমাবেশ। সোমবার বিকেল ৫টার দিকে প্রায় পাঁচ শতাধিক নেতা-কর্মী ও সাধারণ ভোটারদের নিয়ে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন এ ইউনিয়ন থেকে আ’লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত প্রার্থী মিলন মিয়া।

এসময় বিক্ষুদ্ধরা সিডি খান ইউনিয়ন থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে এলাকার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ভূরঘাটা-মোল্লারহাট সড়কের বটতলা মোড়ে শেষ হয়। সেখানে সড়কে টায়ার জ্বলিয়ে বিক্ষোভ করে বিক্ষুদ্ধরা। এসময় চাঁন মিয়া শিকদারের বিরুদ্ধে কটুক্তিমূলক শ্লোগান নিতে শোনা যায়। এসময় প্রায় দেড় ঘন্টা যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে কালকিনি থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। মঙ্গলবার সকালেও বটতলা এলাকায় থেমে থেমে বিক্ষোভ করে আ’লীগের একাংশের নেতা-কর্মীরা।

পথসভায় বক্তব্য রাখেন কালকিনি উপজেলা আ’লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান সরদার, সিডি খান ইউনিয়ন আ’লীগের সহ-সভাপতি রশীদ করিবাজ, ইউনিয়ন আ’লীগ সাধারন সম্পাদক ওয়াজেদ সরদার, ইউনিয়ন যুবলীগ সভাপতি রাসেল সরদার, মনোনয়ন বঞ্চিত মিলন মিয়া প্রমুখ।
এব্যাপারে কালকিনি উপজেলা আ’লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মান্নান সরদার বলেন, ‘আমরা ইউনিয়ন থেকে নেতা-কর্মীরা যাচাই-বাচাই করে মিলন মিয়ার নাম পাঠিয়েছি। কিন্তু কোন অপশক্তির জোরে চাঁন মিয়া নৌকার মনোনয়ন পাইলো, বুঝি না। যদি নৌকা টাকার কাছে বিক্রি হয়ে যায়, তাহেল আর দল করে কোন লাভ নাই। আমরা আ’লীগের লোকজন মিলন মিয়াকেই প্রার্থী করবো। নৌকা না পাইলেও সে আ’লীগের লোক।’
দলীয় মনোনয়নপ্রাপ্ত প্রার্থী মো. চাঁন মিয়া শিকদার বলেন, ‘আমি ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি, আমি তো উড়ে এসে জুড়ে বসি নাই। যারা আমার বিরোধিতা করছে, তাদের প্রার্থীর জামানাত বাজেয়াপ্ত হবে। নৌকা প্রধানমন্ত্রী আমাকে দিয়েছে, আমি সেটা রক্ষা করে বিজয়ী হবো। কোন শক্তি আমাকে দমাতে পারবে না। এখন কিছু নেতারা আমাকে হেয় করার চেষ্টা করছে। তাদের আশা পূরণ হবে না।’

এব্যাপারে কালকিনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইশতিয়াক আসফাক রাসেল জানান, ‘ঘটনার পর থেকে ওই এলাকায় পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। নির্বাচনের আগ থেকেই সিডি খান ইউনিয়নকে অধিক ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। আমরা চেষ্টা করছি শান্তি বর্জার রাখার জন্যে।’