Breaking News
Home / রাজনীতি / খালেদার মামলার রায় কী হবে, বোঝা যাচ্ছে: ফখরুল

খালেদার মামলার রায় কী হবে, বোঝা যাচ্ছে: ফখরুল

এনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করেছেন, খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে বিচারাধীন দুর্নীতির মামলা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী যেভাবে কথা বলছেন, তাতে বোঝা যাচ্ছে মামলায় রায় কী হবে।

আজ বুধবার বিকেলে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় কচি-কাঁচা মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল এ কথা বলেন। চলচ্চিত্র নির্মাতা চাষী নজরুল ইসলামের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক জোট ওই আলোচনা সভার আয়োজন করে।

বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে গতকাল মঙ্গলবার আওয়ামী লীগের সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যের সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল বলেন, আদালতে মামলা চলছে। আর প্রধানমন্ত্রী রায় দিয়ে দিলেন। প্রধানমন্ত্রী নির্বাহী প্রধান। তাহলে বিচারকের রায় দেওয়ার প্রয়োজন আছে কি না, এ প্রশ্ন রেখে মির্জা ফখরুল বলেন, সে রায় কোন দিকে যাবে, তা তাঁরা বুঝতে পারছেন। তিনি বলেন, মামলা প্রভাবিত করে রায় দিয়ে মানুষকে দাবিয়ে রাখা যাবে না।

নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে রাষ্ট্রপতির সংলাপের উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বিএনপির মহাসচিব বলেন, শেষ পর্যন্ত রাষ্ট্রপতি কী করবেন, তার ওপর নির্বাচন কমিশন ও দেশের ভবিষ্যৎ নির্ভর করছে।

জঙ্গিবাদ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের জবাবে মির্জা ফখরুল বলেন, বিএনপিও চায় জঙ্গিবাদের উসকানিদাতাদের খুঁজে বের করা হোক। কিন্তু অভিযুক্ত ব্যক্তিদের মেরে ফেলা হচ্ছে। তদন্ত হচ্ছে না, বিচার হচ্ছে না। তিনি প্রশ্ন রাখেন, আওয়ামী লীগের মুখোশ উন্মোচিত হওয়ার ভয়েই কি জঙ্গিদের বিচারের আওতায় আনা হচ্ছে না?

প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল বলেন, যারা গণতন্ত্রে বিশ্বাস করে না, তারা গণতন্ত্রের ভাষায় কথা বলে।২০০৭ সালের ১১ জানুয়ারি ক্ষমতায় আসা সেনা-সমর্থিত তত্ত্বাবধায়ক সরকারকে অবৈধ দাবি করে মির্জা ফখরুল বলেন, এদিন ছিল সংবিধানসম্মত সরকারকে সম্পূর্ণ বেআইনিভাবে উচ্ছেদ করে বেআইনি সরকার প্রতিষ্ঠার দিন।

ওই সরকারের মূল উদ্দেশ্য ছিল বিরাজনীতিকরণ। তিনি দাবি করেন, সেই ধারাবাহিকতা এখনো অব্যাহত আছে। এখন ভিন্নভাবে বিরাজনীতিকরণের চেষ্টা চলছে। জাতীয়তাবাদী দর্শনকে নির্মূল করার চেষ্টা হচ্ছে। চাষী নজরুলের স্মৃতিচারণা করে মির্জা ফখরুল বলেন, তিনি ছিলেন ব্যতিক্রমী মানুষ। চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তিনি জাতিকে নির্মাণের কাজ করেছেন।

আলোচনা সভায় অন্যদের মধ্যে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, জাসাসের সাধারণ সম্পাদক মনির খান প্রমুখ বক্তব্য দেন।prothom-alo

Facebook Comments
Copy Protected by Chetan's WP-Copyprotect.