‘বঙ্গবন্ধুর সরকারের অধীনে ৪০০ টাকা বেতনে চাকরি করেছে জিয়াউর রহমান’

152

বঙ্গবন্ধুর সরকারের অধীনে ৪০০ টাকা বেতনে চাকরি করেছে জিয়া: গোলাপ

সমীরণ রায়:আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আরও ড. আবদুস সোবহান গোলাপ বলেন, বঙ্গবন্ধু স্বাধীনতার ডাক দিয়েছেন এবং তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বাধীনতা হয়েছে। ৭ মার্চের বঙ্গবন্ধুর ভাষণ আজ ওয়াল্ড হেরিটেজে জায়গা পেয়েছে। বিএনপি দাবি করে জিয়ার কথায় নাকি দেশে স্বাধীনতা হয়েছে। ৪শত টাকার চাকরি জীবির কথায় কিভাবে দেশ স্বাধীন হয় ?

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু নাম যারা মুছে ফেলার চেষ্টা করছে যারা তারাই মূল ষড়যন্ত্রকারী। ইতিহাস প্রমাণ করেছে বঙ্গবন্ধু নাম মুছে ফেলা যায় না। আজ ঘরে ঘরে বঙ্গবন্ধুর আর্দশ ধারণ করে বঙ্গবন্ধু কর্মী গড়ে ওঠেছে। বঙ্গবন্ধুর যে নীতি ছিলো সেই নীতিতে সমুদ্র জয় করেছে বাংলাদেশ। পিছনের রাস্তা দিয়ে ক্ষমতার আসার দরজা বন্ধ হয়ে গেছে। কোনো অপশক্তি যেন শেখ হাসিনার উন্নয়নের ধারা বাধগ্রস্ত করতে না পারে এজন্য সজাগ থাকার আহবান করেন তিনি।

[৪] আব্দুস সোবহান গোলাপ বলেন, বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালীন লাখ কর্মী ছিলো। তারা এখন কোথায়? খালেদা জিয়ার জন্য একটি আন্দোলন করতে পারেনি বিএনপি। যে দল ক্ষমতায় থাকে কিছু লোক সেই দলে যোগ দেয়, এদের থেকে সাবধান। ত্যাগী নেতারা কখনো সুবিধা নেয়ার জন্য সংগঠন করে না। তারা সবসময় ত্যাগ স্বীকার করে দলের জন্য কাজ করে। আর সুবিধাবাদীরা ক্ষমতাসীন দলে যোগ দেয় সুবিধা নেয়ার জন্য।

মঙ্গলবার ২৩ বঙ্গবন্ধু এভিনিউ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় রাজনৈতিক কার্যালয়ে মৎস্যজীবি লীগের নবগঠিত কমিটির পরিচিত সভায় এসব কথা বলেন তিনি।
আওয়ামী মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি মো.সায়ীদুর রহমানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক লায়ন শেখ আজগর নস্কর এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কার্যকরী সভাপতি সাইফুল আলম মানিক, সহ-সভাপতি আবুল বাশার, আব্দুল গফুর চোকদার, মুহাম্মদ আলম,

গিয়াস খান, মোহাম্মদ ইউনুস, মোঃ নাছির উদ্দিন মানিক, মঞ্জুর কাদের মোহান, মমতাজ খানম, নাসরিন আক্তার, সাজ্জাদুল হক লিকু সিকদার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আলীম, রফিকুল ইসলাম খান, ফিরোজ আহম্মেদ তালুকদার প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় সহযোগীতা করেন প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মোঃ শফিউল আলম শফিক ও দপ্তর সম্পাদক এম.এইচ এনামুল হক রাজু।