Breaking News

একদিনের মজুরিতে ২০ কেজি চাল কিনতে পারেন শ্রমিকরা: তথ্যমন্ত্রী

একজন শ্রমিক একদিনের মজুরিতে ১২ থেকে ২০ কেজি চাল কিনতে পারেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। আজ মঙ্গলবার দুপুরে নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন। গুরুদাসপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে সমাবেশের আয়োজন করা হয়।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের প্রতিটি গ্রামে বিদ্যুৎ ও ইন্টারনেট সেবা ছাড়াও অবকাঠামোর পরিবর্তন হয়েছে। বেড়েছে মানুষের আয়। এখন একজন শ্রমিক একদিনের মজুরি দিয়ে ১২ থেকে ২০ কেজি চাল কিনতে পারেন। এভাবে বিভিন্ন সেক্টরে উন্নতির কারণে বাংলাদেশ উন্নয়নের রোল মডেল হয়েছে।’

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘২০০৮ সালে আওয়ামী লীগের স্লোগান ছিল ‘‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’, যা আজ বাস্তবায়ন হয়েছে। এখন দেশের প্রত্যেকের হাতে ফোন ও ইন্টারনেট। এর ফলে আগে যেখানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢাকার শিক্ষার্থীরা ভর্তি হতে পারতেন, এখন বেশি ভর্তি হন ঢাকার বাইরের শিক্ষার্থী। তারা অনলাইনে ফরম পূরণ ও পরীক্ষায় অংশ নিয়ে ভর্তি হচ্ছেন। এ ছাড়া দেশের বিভিন্ন সেবা এখন ডিজিটালাইজড হয়েছে, যার ফলে কমেছে মানুষের ভোগান্তি। এরপর ২০১৮ সালে আওয়ামী লীগের স্লোগান ছিল ‘গ্রাম হবে শহর’, যা এখন বাস্তবায়িত হয়েছে।’

বিএনপির সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগের এমন উন্নয়নের বিপরীতে তারেক জিয়ার কথামতো বিএনপির স্লোগান হয়েছে, ‘টেক ব্যাক বাংলাদেশ।’ অর্থাৎ তারা দেশকে পেছনে নিতে চায়। তারা তারেক জিয়ার নেতৃত্বে জাতীয় সরকারের ঘোষণা দিয়েছে। বিএনপি ক্ষমতায় গেলে তারেক জিয়ার নেতৃত্বে আবারও হাওয়া ভবনের দুর্নীতিসহ দেশকে পেছনের দিকে নিয়ে যাবে। আবারও হবে বাংলাভাই, একসঙ্গে বোমা ফাটবে ৫ হাজার জায়গায়।’

নিজ দলের বিষয়ে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বিশ্বের কোনো সরকারই শতভাগ নির্ভুল কাজ করতে পারে না। তাই আওয়ামী লীগেরও কিছু ভুল-ত্রুটি রয়েছে। আগামীতে ক্ষমতায় গেলে সেই ভুলগুলো শুধরে দেশকে আরও এগিয়ে নিতে কাজ করবে সরকার। এ কারণে আবারও আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় আনতে নেতাকর্মীসহ সবাইকে সহযোগিতা করতে হবে।’

উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলন উদ্বোধন করেন নাটোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সংসদ সদস্য আব্দুল কুদ্দুস। বিশেষ অতিথি ছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন। অন্যদের মধ্যে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী ‍জুনাইদ আহমেদ পলক, এমপি শহীদুল ইসলাম বকুল, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রমজান আলী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

গুরুদাসপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনিসুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শরিফুল ইসলাম রমজান, কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগের সহসভাপতি কোহেলী কুদ্দুস মুক্তি, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. জাহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

দীর্ঘ ৮ বছর পর অনুষ্ঠিত সম্মেলনে আনিসুর রহমানকে সভাপতি ও আব্দুল মতিন মাস্টারকে সাধারণ সম্পাদক করে গুরুদাসপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের নবগঠিত কমিটির নাম ঘোষণা করেন হাছান মাহমুদ। তিনি নাটোর জেলা আওয়ামী লীগকে ৭১ সদস্য বিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের নির্দেশ দেন। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনায় ছিলেন পৌর মেয়র শাহনেওয়াজ আলী মোল্লা।

Check Also

বিএনপির সমাবেশের জন্য টি-শার্ট তৈরির অপরাধে উত্তরায় ১জন আটক

রাজধানী ঢাকা উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশের বিরুদ্ধে বাইংহাউজ ব্যবসায়ীকে বিনা কারণে আটক করে হয়রানির করছেন …

Leave a Reply

Your email address will not be published.