বিএনপির সমাবেশের জন্য টি-শার্ট তৈরির অপরাধে উত্তরায় ১জন আটক

BPL 2023 লাইভ দেখুন এই লিংকে  rtnbd.net/live

রাজধানী ঢাকা উত্তরা পশ্চিম থানা পুলিশের বিরুদ্ধে বাইংহাউজ ব্যবসায়ীকে বিনা কারণে আটক করে হয়রানির করছেন বলে জানান ভুক্তভোগী মো.দুলাল হোসেনের পরিবার ।তারা জানায়, দুলাল প্রায় চৌদ্দবছর যাবত গার্মেন্টস ব্যবসা করে আসছে। এ ব্যবসায় তাকে সহায়তা করেছে তারই আপন ছোট ভাই তাদের গোডাউন ইনচার্জ মো.জামাল হোসেন।তারা আরো জানান, আগামী ২৬ শে নভেম্বর কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলা বি এন পি অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের জনসভায় ব্যাবহার করার জন্য সায়মা ফ্যাশনকে মুরাদনগর থেকে ৬০০০ পিচ টি -সার্ট তৈরির ওয়ার্ক অর্ডার দেওয়া হয়। কাজের অর্ডার পেয়ে সে মতে দুলাল কোনাবাড়ির মা ফ্যাশন ফ্যাক্টরির সাথে ৬০০০ পিচ, বি এন পি, নেতাদের ছবি সহ লগো খচিত টি সার্ট তৈরির চুক্তি করেন।

বৃহষ্পতিবার দুপুর আনুমানিক ১২.৩০ মিনিটের সময় গাজীপুর কোনাবাড়ীস্হ মা ফ্যাশনের ব্যবস্হাপনা পরিচালক মো.নুরুল ইসলাম ৫৫০০ পিচ টি-শার্ট রেডি করে পিক-আপে করে উত্তরা নিয়ে আসেন। পিক-আপ ভর্তি মালামাল নিয়ে সায়মা ফ্যাশনের ভাড়া করা গোডাউন উত্তরা ৫ নং সেক্টরের ৬ নং রোডের ৩০ নং হাউজে পৌঁছা মাত্রই রাস্তার পাশে ওত পেতে থাকা উত্তরা পশ্চিম থানার এস আই আলামিন, মা ফ্যাশনের এম ডি, নুরুল ইসলাম, সায়মা ফ্যাশনের গোডাউন ইনচার্জ মো. জামাল হোসেন ও কভার ভেন চালককে তার সংগীয় ফোর্স নিয়ে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

আটক কৃতরা আটকের বিষয় জানতে চাইলে তাদেরকে কোন জবাব না দিয়ে গাড়িতে থাকা ৫৫০০ পিচ টি-শার্ট সহ উত্তরা পশ্চিম থানায় নিয়ে যায়। সায়মা ফ্যাশনের প্রোপ্রাইটর মোঃ দুলাল হোসেনের পরিবার জানায়, তারা ২ ভাই কোন রাজনৈতিক দলের সাথে সম্পৃক্ত নয়। প্রায় চৌদ্দবছর যাবত তারা উত্তরাতে ব্যবসা করে হালাল উপার্জন করছে। দীর্ঘ সময় ধরে উত্তরাতে এ ব্যবসা করতে গিয়ে এমন পরিস্থিতিতে তারা কখনোই পরেনি বলে এমন ক্ষোভ প্রকাশ করেছে তার পরিবারের লোকজন। দুলালের স্রী জানায়, দুলাল তার ছোট ভাই গোডাউন ইনচার্জ মো. জামাল এবং মা ফ্যাশনের এম ডি, মোঃ নুরুল ইসলামের গ্রেফতারের খবর পেয়ে বিকালে উত্তরা পশ্চিম থানায় দেখতে গেলে থানা পুলিশ তাকে আটকে রেখে মা ফ্যাশনের এম ডি, এবং কাভার ভেন চালককে ছেড়ে দিয়েছেন। বাইংহাউজ ও গার্মেন্টস ব্যবসায়ীকে আটক এবং হয়রানির বিষয়ে জানতে চাইলে উত্তরা পশ্চিম থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মহসিন জানান, চুরির মাল সন্দেহ করে তাদেরকে আটক করা হয়েছে। তদন্ত চলছে, তদন্ত শেষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

Check Also

নির্বাচনের ফলাফল বর্জন করলেন হিরো আলম

এবার বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল ইসলাম আলম ওরফে হিরো আলম ভোট গণনায় কারচুপির …

Leave a Reply

Your email address will not be published.