নোয়াখালীতে কলেজছাত্রীকে ধ’র্ষণে ব্যর্থ হয়ে বাবাকে মা’রধর

82

নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ায় ঘরে ঢুকে কলেজছাত্রীকে (১৮) ধ’র্ষণের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে এক যুবকের বিরুদ্ধে।
ওই সময় কলেজ ছাত্রীর বাবা বাধা দিলে তাকে মা’রধর করে স্থানীয় যুবক রাজু, অভিযুক্ত প্রেমলাল দাস (৩০) ও তার ভাই বাবুলাল দাস।
মঙ্গলবার রাত নয়টায় উপজেলার চর ঈশ্বর ইউনিয়নের খাসের হাট বাজারের পাশে গামছা খালি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত প্রেমলাল দাস (৩০) গামছাখালী গ্রামের শংকর দাসের ছেলে। বুধবার রাতে ভুক্তভোগী কলেজছাত্রী অভিযুক্ত প্রেমলালের বিরুদ্ধে হাতিয়া থানায় একটি মামলা করেছে।
স্থানীয়দের অভিযোগ, স্থানীয় সন্ত্রাসী রাজুর সহযোগী প্রেমলাল এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করেছে।
রাজু ও তার সহযোগীদের ভয়ে স্থানীয় স্কুল-কলেজ পড়ুয়া অনেক ছাত্রী এলাকা ছেড়ে অন্যত্র থেকে লেখাপড়া করছেন।

ভুক্তভোগী কলেজছাত্রীর বাবা জানান, এ বিষয়ে তিনি হাতিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে (ইউএনও) অবহিত করেছেন।
ইউএনও ইমরান হোসেন এবং সহকারী কমিশনার (ভূমি) সারোয়ার সালাম বুধবার দুপুরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. ইমরান হোসেন বলেন, মৌখিকভাবে অভিযোগ পেয়ে এবং ভুক্তভোগী নোয়াখালীর পুলিশ সুপারের কাছে অভিযোগ করায় আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি, এ বিষয়ে স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনকে অবহিত করা হয়েছে।

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) কাঞ্চন কান্তি দাশ জানান, বুধবার ভুক্তভোগী কলেজছাত্রী অভিযুক্ত প্রেমলালের বিরুদ্ধে হাতিয়া থানায় একটি মামলা করেছে।
রাত সাড়ে নয়টায় ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তবে কেউ আটক হয়নি।