ভাইদের অত্যাচারে বাড়ি ছাড়া বোন

4

সহোদর ভাইদের নির্যাতনে পৈত্রিক ভিটা ছাড়া হয়েছেন সাতক্ষীরার দক্ষিণ আলিপুরের আম্বিয়া খাতুন। তার তৈরি বাড়ি দখল করে নিয়েছেন আপন ভাইয়েরা।
আসবাবপত্র ভাঙচুর এমনকি গাছগাছালি কেঁটে নিয়েছেন ভাইয়েরা। এর প্রতিবাদ করতে গিয়ে মারও খেয়েছেন আম্বিয়া। হামলার শিকার হয়েছে আম্বিয়ার দুই ছেলে।
এসব কথা জানিয়ে আম্বিয়া খাতুন জানান, বাবা আকছেদ আলির কাছ থেকে এক শতক জমি প্রাপ্ত হন। পরে তার দুই ভাইয়ের কাছ থেকে আরও দুই শতক জমি ক্রয় করেন তিনি। এই তিন শতক জমিতে বাড়ি তৈরি করেছেন। দুই ছেলেকে নিয়ে সেখানেই বসবাস করছিলেন।
এদিকে, এই জমি থেকেও তাকে উৎখাত করতে চায় তিন ভাই শফিকুল, ওহিদুল, খোকনসহ তাদের সহযোগীরা। গত ১৩ নভেম্বর তিন ভাইসহ কয়েকজন বাড়িতে ঢুকে ঘরের চালা ভেঙে ফেলে। ঘরে থাকা জিনিসপত্র লুটপাট করে ও মারপিট করে। দুই ছেলে টিটু ও রাফাও মারপিটের হাত থেকে রক্ষা পায়নি।
মারপিট করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়া হয় তাদের। এরপর থেকে তারা অন্যত্র একটি ভাড়া বাড়িতে থাকছেন। এ ঘটনার পর তারা সবাই হাসপাতালে ভর্তি হন। থানায় মামলা করেন।
আম্বিয়া খাতুন বলেন, সাতক্ষীরা থানার এসআই আমাদের বাড়িতে যেয়ে তিন আসামিকে গ্রেফতার করে পরদিন সকালে ছেড়ে দেন। গ্রেফতারদের আদালতে পাঠাননি। গ্রেফতারের ব্যাপারে তাগিদ দিলে এসআই নুর আলম দফায় দফায় ১২ হাজার টাকা নেন। কিন্তু কাউকে গ্রেফতার করেননি। আমি আমার বাড়িতে উঠতে চাই।
তবে এসব বিষয়ে সাতক্ষীরা থানা পুলিশের এসআই নুর আলম বলেন, উভয় পক্ষের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। ঘটনায় পাল্টাপাল্টি মামলা হয়েছে। টাকা নেয়ার বিষয়টি জানতে চাইলে এড়িয়ে যান তিনি।
আকরামুল ইসলাম/এএম/জেআইএম