পাবনায় চাঁদা না পেয়ে কলেজশিক্ষককে কুপিয়ে জখম

4

পাবনায় চাঁদা না পেয়ে সরকারী মহিলা কলেজের এক শিক্ষককে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জেলা শহরের পৌর এলাকার দিলালপুরে এ ঘটনা ঘটে।

আহত শিক্ষকের নাম আব্দুর রব (৪৫)। তিনি ঐ কলেজের বাংলা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক।
পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক পরিবারের বরাত দিয়ে বলেন, ‘বেশ কিছু দিন ধরেই শহরের পাথরতলা এলাকার হাসান, নাহিদসহ কিছু সন্ত্রাসী বিভিন্ন অজুহাতে শিক্ষক আব্দুর ররের নিকট চাঁদা দাবি করে আসছিল। বৃহস্পতিবার তিনি বাড়িতে ব্যবহারের জন্য আইপিএস ক্রয় করে আনলে আবারো চাঁদা দাবি করে তারা। আব্দুর রব তাতে অস্বীকৃতি জানালে সন্ত্রাসীরা সন্ধ্যায় তাকে রাস্তায় একা পেয়ে বেদম মারপিট ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। আব্দুর রবের চিৎকার শুনে এ সময় পথচারীরা এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।’
পরে স্থানীয়দের সহায়তায় তাকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয় বলেও জানান তিনি।

ওসি আরো জানান, এ বিষয়ে মৌখিক অভিযোগ পেয়েছি। পাবনা সদর থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।
পাবনা জেনারেল হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. শাহজাহান শোয়েব জানান, শিক্ষক আব্দুর রবের মাথায় গুরুতর জখম হয়েছে। আঘাতে গভীর ক্ষতের সৃষ্টি হয়েছে। আমরা প্রয়োজনীয় চিকিৎসা প্রদান করেছি এবং বেশকিছু পরীক্ষা দেয়া হয়েছে। মাথায় আঘাত বলে আমরা ১২ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণের পর রোগীর অবস্থা জানাতে পারব।
এ ঘটনায় পাবনায় শিক্ষকদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। আব্দুর রবের উপর হামলার খবরে তার সহকর্মীরা ছাড়াও বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষকবৃন্দ হাসপাতালে ভিড় করেন। ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে দ্রুত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান তারা।
আরজে/এসএফ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ