সাইফ আউট, নেমেই ভয় পেয়ে যায়

176

বুধবার কলকাতার ইডেন গার্ডেনে বাংলাদেশের অবরুদ্ধ ওপেনার সাইফ হাসানের আহত আঙুলের দিকে চিকিত্সা কর্মীরা তাকিয়ে আছেন। – বিসিবি ছবি
বুধবার ভারতের বিপক্ষে দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টের আগে ইনজুরির ঝাপটায় পড়েছিল চোটের কারণে ওপেনার ওপেনার সাইফ হাসান।
ইন্দোরের প্রথম টেস্টের সময় দ্বাদশতম খেলোয়াড়ের মতো ফিল্ডিংয়ের সময় সাইফ তার ডান হাতের আঙুলটিতে আঘাত করেছিলেন এবং টেস্টের জন্য তাকে উপলব্ধ করতে পর্যাপ্তরূপে পুনরুদ্ধার করতে ব্যর্থ হন।

বুধবার কলকাতার ইডেন গার্ডেনে অনুশীলন অধিবেশনে দলে যোগ দেন সাইফ এবং তার অংশগ্রহণ কেবল দৌড়ের মধ্যেই সীমাবদ্ধ ছিল।
বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘প্রথম টেস্টের সময় দ্বাদশতম ফিল্ডিংয়ের দায়িত্ব পালনকালে ওপেনিং ব্যাটসম্যান সাইফ হাসান আঙুলের ওয়েবিং বিভক্ত করেছিলেন।

‘চোটটি এখনও নিরাময় করতে পারেনি এবং চিকিত্সক দলটি সম্পূর্ণ পুনরুদ্ধারে বিশ্রাম পেয়ে তিনি উপকৃত হবেন বলে অভিমত রয়েছে।
এতে আরও বলা হয়েছে, ‘চোটের অবস্থা বিবেচনায় নিয়ে সাইফকে দ্বিতীয় টেস্টের বাইরে নামানো হয়েছে।’
প্রথম টেস্টে সাইফকে বেছে নেওয়া হয়নি তবে ইন্দোরের ইমরুল কায়েস ও শাদমান ইসলামের দু'বার ব্যর্থতার পরে কলকাতায় অভিষেকের ভাল সুযোগ নিয়ে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি।

ইমরুল ও শাদমান উভয়ই প্রথম টেস্টের উভয় ইনিংসেই ছয় রানের এক অসাধারণ স্কোর তৈরি করেছিলেন যে বাংলাদেশ তিন দিনের মধ্যে একটি ইনিংস ও ১৩০ রানের ব্যবধানে হেরেছিল।
অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেনও ব্যক্তিগত কারণে দেশে ফিরে আসায় বাংলাদেশকে এখন ১৪ জন খেলোয়াড়ের কাছ থেকে দল বেছে নিতে হবে।

অনুশীলন অধিবেশন চলাকালীন অফ স্পিনার নাeম হাসানের মাথায় আঘাত পেয়ে তারা বুধবার আরেকটি আঘাতের ভয় পেয়েছিলেন।
তিনি কলকাতার একটি হাসপাতালে সিটি স্ক্যান করেছেন এবং তার রিপোর্টে গুরুতর কিছুই পাওয়া যায়নি বলে টিম কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।
দ্বিতীয় টেস্ট, যা একটি দিন-রাতের বিষয় হবে, শুক্রবার ইডেন গার্ডেনে শুরু হবে।