Breaking News

আরেকটু দেরি হলেই কেলেঙ্কারি হয়ে যেত, রাকিব ছেলেটিকে ধরার চেষ্টা করছে : মাহি

অভিনয়ের পাশাপাশি প্রায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সরব হতে দেখা যায় বাংলা রূপালী জগতের খুবই জনপ্রিয় ও আলোচিত অভিনেত্রী মাহিয়া মাহি। তবে সম্প্রতি কেউ একজন গুণী এই অভিনেত্রীর ফেসবুক আইডি হ্যাক করে একটি উসকানি মূলক স্ট্যাটাস দেয়, এই নিয়েই রীতিমতো শুরু হয়েছে নানা আলোচনা-সমালোচনা।যেকানে লেখা ছিল, ‘আমরা আর একসঙ্গে নেই’—চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহির ফেসবুক পোস্ট! ‍মুহূর্তেই ভাইরাল ইন্টারনেটে। রোববার (৯ অক্টোবর) রাত ৯টার দিকে তার নিজের ফেসবুক আইডি থেকে এই পোস্ট। রহস্য দানা বাঁধে, আবারও কি ঘর পুড়ছে ‘পোড়ামন’ নায়িকার?

তাৎক্ষণিকভাবে গণমাধ্যমকর্মীরা রহস্য উদঘাটনে মাহির সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেন। কারো ফোন রিসিভ করছিলেন না নায়িকা। এরপর ঘর ভাঙার গুঞ্জন আরও জোরালো হয়। ভক্ত-অনুসারীদের মধ্যে সংশয় দেখা দিয়েছে, মাহি-রাকিবের সংসার কি স্থায়ী হচ্ছে না? আধঘণ্টা পর স্ট্যাটাসটি মুছে ফেলা হয়। এরপর মাহির ওই আইডিতে লেখা ছিল, ‘কিছুক্ষণ আগে আমার প্রোফাইলে অন্য কেউ লগইন করেছে। জানি না কাকে কাকে টেক্সটও পাঠিয়েছে। কী ভয়ানক!’এ প্রসঙ্গে সোমবার (১০ অক্টোবর) বিকেলে নিজের অবস্থান স্পষ্ট করে মাহি বলেন, ‘ফেসবুক এমন একটা জিনিস, যে কোনো সময় হ্যাক হতে পারে বা পাসওয়ার্ড জেনে যে কেউ লগ ইন করতে পারে। আমারও তাই হয়েছে। কিন্তু আমি কিছুক্ষণ পরে তা বুঝতে পেরে স্ট্যাটাসটি মুছে দিয়েছিলাম। আরেকটু দেরি হলে কেলেঙ্কারি হয়ে যেত। সবার ভুল ভাঙতে নতুন একটি স্ট্যাটাসও দিয়েছি। সঙ্গে সঙ্গে আমার আইডি পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করেছি। বলতে পারেন, এটা একটা দুর্ঘটনা মাত্র।’

ঘটনার বিষয়ে মাহি বলেন, “যখন ঘটনাটি ঘটে, তখন রাকিবের বোন এবং আমি থেরাপির জন্য হাসপাতালে ছিলাম। অন্যদিকে রাকিব তার রাজনৈতিক কাজ নিয়ে দূরে ছিলেন। কাজ শেষ করে ফোন নিয়ে দেখি, অনেক মানুষের মিসড কল। তার মধ্যে রাকিবেরও অনেক মিসড কল আছে। আমি ভাবছিলাম কি হয়েছে। আমি রাকিবকে ফোন করলে ঘটনাটা জানতে পারি। সাথে সাথে ফেইসবুকে ঢুকে স্ট্যাটাসটা ডিলিট করি। এরপর আমি পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করি। এরপর একজনকে দিয়ে আইডির পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করি।’যে ছেলেটি মাহির ফেসবুক পেজ ও আইডি দেখাশোনা করত তাকে সন্দেহ করে মাহি। মাহি বলেন, “আগে একটা ছেলে আমার পেজ ও আইডি দেখত।

আমি এক বছর আগে ছেলের কাছ থেকে পেজ ও আইডি নিয়েছিলাম। কিন্তু আমার মনে হয় ছেলেটির কাছে আমার আইডি লগইন ছিল। এ ঘটনার পর আমি ও রকিব দুজনই ছেলেটিকে ফোনে ধরার চেষ্টা করেছি। কিন্তু তিনি ফোন ধরেননি।’উল্লেখ্য, ২০২১ সালে ব্যবসায়ী পারভেজ মাহমুদ অপুর সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদের পর রাকিব সরকারের সঙ্গে নতুন করে সংসার পাতেন মাহিয়া মাহি। রাকিবের সঙ্গে দাম্পত্য জীবন নিয়ে বেশ ভালোই রয়েছন তিনি।

Check Also

স্কুলে ডেকে এনে প্রেমিককে জাপটে ধরে রোমান্সে মাতলেন ছাত্রী, এলাকাজুড়ে হইচই

সিনেমায় রোমান্টিক দৃশ্য হরহামেশাই দেখা যায়, যে সময় প্রেমিক প্রেমিকার মনেও রোমান্স জাগে। এটাই স্বাভাবিক। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.