Breaking News

ছেলেকে বাঁচাতে এগিয়ে এলো না কেউই, বিফলে গেলো মায়ের আকুতি!

স্টাফ রিপোর্টার:’আমিন’ দু’দিন আগেও কিছুটা হলেও কথা বলতে পারত। আজ সেভাবে কথা বলতে পারছে না সে। তার নাকি এখন শরীর নিস্তেজ হয়ে ঘুম পায়। গা ব্যাথা করে।আজ সোমবার ১১ অক্টোবর সারাদিন প্রচন্ড গলা ব্যথা ও গলায় কামড়াকামড়ির জন্য মাটিতে গড়াগড়ি করেছিল।আমিনের বাড়ি কুড়িগ্রাম জেলার নাগেশ্বরী উপজেলার ভিতরবন্দ ইউনিয়নের দোয়ালিপাড়া গ্রামে । সে ভিতরবন্দ বাজারের নুর ইসলামের (আলীর নাতি)। এক আসহায় দিনমজুর বাবার ছেলে আমিন।বয়স ১৭ বছর। জায়গা জমি নেই। অন্যের জায়গায় বসবাস। তিন বেলা ঠিকমত খেতে পারতো না। সেই জন্য ছোট বেলায় আমিনকে তার নানার বাড়িতে রেখে দেয় তার বাবা মা।

নানার (আলীর) বাড়িতেই আমিনের বেড়ে উঠা।আলীরও অভাবের সংসার। আমিনকে লেখাপড়া করার মত তার সামর্থ্য ছিল না। তাই তিনি আমিনকে সাথে নিয়ে ভিতরবন্দ বাজারে ছাগল/ ভেড়া জবাই করে মাংস বিক্রি করতেন।কয়েক মাস আগে আমিনের গলায় ছোট ছোট কয়েকটি টিউমার হয়েছিল। সেখান থেকেই ক্যান্সারের উৎপত্তি। ব্লাড ক্যান্সার হয়েছে তার। তবে আশার কথা ক্যান্সারটা প্রথম ষ্টেজে আছে। ক্যান্সারের এই ব্যায়বহুল চিকিৎসা আমিনের বাবা ও নানার পক্ষে করা অসম্ভব হয়ে দাড়িয়েছে।আমিনের বাবার তো কিছুই নেই। এমনকি তার নানার ভিটা মাটি বিক্রি করলেও চিকিৎসার খরচ যোগাতে পারবে না।১৭ বছরের একটা ছেলে, বয়সেই বা কত হয়েছে।

আসুন না আমিনের জন্য সবাই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেই। আল্লাহ চাইলে আপনাদের একটু সহযোগিতাই পারে আমিনকে বাঁচাতে।অসুস্থ আমিনের সাথে কথা বলার চেষ্টা করা হলে সে শুধু বলে ‘খালি ঘুম পায়,ঘুম, আর ব্যথা।এ ব্যাপারে কথা হলে ছেলেটির মা আলিমা বেগম বলেন, ডাক্তার বলছে তাড়াতাড়ি চিকিৎসা করলে আল্লাহ চাইলে হয়তো আমার ছেলেটা বাঁচবে। দেরী করলে বাঁচানো যাবে না। দু’ই দিন আগেও ছওয়াটা কথা কইল।

আজ কথা কয়না। তিনি কাঁদতে কাঁদতে বলেন সবাই মোর ছেলেটাক দয়া করেন। ডাক্তার বলছে চিকিৎসায় প্রায় ১ লাখ টাকা লাগবে। মোর ছওয়াটা খুব অসহায়।উল্লেখ্য, ক্যান্সার আক্রান্ত ছেলেকে বাঁচাতে অসহায় মায়ের করুন আকুতি’ শিরোনামে গত ৩০ সেপ্টেম্বর সময়ের কন্ঠস্বরে নিউজ প্রকাশ হয়। নিউজ প্রকাশের পর আমিনের জন্য এক হাজার টাকা পাওয়া যায়।আপডেট: আমিনকে বাঁচাতে হলে তাকে আগামীকাল মঙ্গলবার ১১/১০/২২ ইং তারিখে চিকিৎসার জন্য রংপুরে যেতে হবে। যদি আল্লাহ রহমত করে তবে হয়তো মানুষের ওছিলায় বেঁচে যেতে পারে একটি তরতাজা প্রাণ।আমিনের পাশে দাড়াতে তার মায়ের একাউন্ট নম্বর- ২০৫০৭৭৭০২০৯৩৮২৫৯২, একাউন্টের নামঃ আলিমা বিবি। ব্যাংকের নাম; ইসলামী ব্যাংক লিঃ কুড়িগ্রাম।ভিডিও কলে আমিনকে দেখতে চাইলে আমাদের স্টাফ রিপোর্টার:- ০১৭১৩২০০০৯১।

Check Also

সরকারের দেওয়া আশ্রায়ণের ঘর নিয়ে বিপাকে ভিক্ষুকপুত্র

টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর পৌরসভায় সরকারের আশ্রায়ণ প্রকল্পের (খ শ্রেণি) ঘর পেয়েও সেখানে বসবাস করতে পারছেন না …

Leave a Reply

Your email address will not be published.