Breaking News

চাচাকে পাগল বলায় ভাতিজাকে কুপিয়ে খুন

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলায় পাগল বলায় দা দিয়ে কুপিয়ে ভাতিজাকে নৃশংসভাবে খুন করেছে এক চাচা।
শনিবার (১২ নভেম্বর) বিকেলে ঈশ্বরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) পীরাজাদা শেখ মোহাম্মদ মোস্তাছিনুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগে একই দিন দুপুরে উপজেলার দেবস্থান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত শিশু উপজেলার দেবস্থান গ্রামের কৃষক নুরুল ইসলামের ছেলে নাঈম (৫)। অভিযুক্ত চাচা লিয়াকত আলীর ছেলে আবদুল বারেক (৩০)।

জানা গেছে, নাঈম শনিবার দুপুরে বাড়ির উঠানে খেলছিল। এ সময় বারেক নিজের ঘরের সামনে হাঁটাহাঁটি করছিলেন। নাঈদ খেলার সময় বারেককে পাগল বলায় দা দিয়ে কুপিয়ে খুন করে। পরে স্থানীয়রা তাকে আটক পুলিশে সোপর্দ করে।

স্থানীয়রা জানান, অভিযুক্ত বারেক ঢাকার একটি হাফিজিয়া মাদরাসায় পড়ালেখা করতেন। মাঝেমধ্যে বাড়িতে আসতেন। কিছুটা অপ্রকৃতস্থ ছিলেন। এর আগেও বারেক তার ভাইয়ের স্ত্রীকে কুপিয়েছিলেন। তিনি প্রাণে বাঁচলেও গ্রাম ছেড়ে এখন ঢাকায় বসবাস করছেন।

এ বিষয়ে ওসি পীরাজাদা শেখ মোহাম্মদ মোস্তাছিনুর রহমান জানান, শনিবার দুপুরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ইতোমধ্যে আবদুল বারেককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

Check Also

হাবিপ্রবির ৫ শিক্ষককে কুপিয়ে জখম, অফিস সহায়ক গ্রেফতার

দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (হাবিপ্রবি) পাঁচ শিক্ষককে কুপিয়ে জখমের অভিযোগে তাজুল …

Leave a Reply

Your email address will not be published.