গভীর ব্যস্ততায় চীন, রাশিয়া

গভীর ব্যস্ততায় চীন, রাশিয়া

বুধবার চীন ও রাশিয়া পৃথকভাবে রোহিঙ্গা সঙ্কটের শান্তিপূর্ণ সমাধানের জন্য বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি বাস্তবায়নে গভীর নিবিড়তা তৈরির অভিপ্রায় প্রকাশ করেছে।
কূটনৈতিক সূত্রের খবর অনুযায়ী, চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং এবং রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আলেকজান্ডার আই ইগানাটোভ Dhakaাকার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেনের সাথে পৃথক বৈঠকে এ লক্ষ্যে তাদের আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন।
মোমেন এবং জিমিংয়ের মধ্যে বৈঠকটি ছিল রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের স্থল প্রস্তুতি নিরীক্ষণ ও মূল্যায়ন করার জন্য পররাষ্ট্রমন্ত্রীর পর্যায়ে বাংলাদেশ, চীন ও মিয়ানমারের মধ্যে একটি ত্রিপক্ষীয় প্রক্রিয়া স্থাপনের অনুসরণ।

বৈঠকে মোমেন মিয়ানমারের সাথে চীন কর্তৃপক্ষের ত্রিপক্ষীয় প্রক্রিয়াটিকে ফলপ্রসূ করার জন্য গৃহীত পদক্ষেপের বিষয়ে জানতে চেয়েছিলেন, কারণ মিয়ানমার পক্ষ ধর্মীয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের প্রত্যাবাসনের জন্য উপযুক্ত পরিবেশ তৈরিতে বিভিন্ন অজুহাতে সময় কিনছিল।
বাংলাদেশ পক্ষকে জানানো হয়েছিল যে চীন কর্মকর্তারা বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের নির্ধারিত দ্বিপক্ষীয় ব্যবস্থাপনায় শান্তিপূর্ণ সমাধানের জন্য কাজ করছেন।
রাষ্ট্রদূত ইগনাটোভ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে বৈঠকে রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার উভয়কেই সহায়তা করার জন্য রাশিয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছিলেন।

এ বৈঠকটি এপ্রিলে মস্কোতে রোহিঙ্গা সঙ্কটের দ্বিপক্ষীয় সমাধানের প্রবক্তা মোমেন এবং তার রাশিয়ার সমকক্ষ সের্গেই লাভ্রভের মধ্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকেরও অনুসরণ এবং এই বিষয়ে দুই মন্ত্রীর মধ্যে কূটনৈতিক চিঠি বিনিময়েরও ছিল।
বাংলাদেশ পক্ষ আশা করেছিল যে গত বছরের নভেম্বর থেকে দু'বার পিছিয়ে থাকা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া পুনরায় শুরু করার সুবিধার্থে রুশরা মিয়ানমারের সাথে সক্রিয়ভাবে জড়িত থাকবে।

জাতিসংঘ সুরক্ষা কাউন্সিলের এক বৈঠকে বাংলাদেশ সংকট স্থায়ী সমাধানের জন্য প্রত্যাবাসী রোহিঙ্গা জনগণ এবং সংখ্যাগরিষ্ঠ বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের সদস্যদের মধ্যে পুনর্মিলনের জন্য দৃ efforts় প্রচেষ্টাের উপর জোর দিয়েছিল।
মঙ্গলবার নিউইয়র্কের ইউএনএইচকিউসে অনুষ্ঠিত আন্তর্জাতিক শান্তি ও সুরক্ষা বজায় রাখার ক্ষেত্রে ইউএনএসসি-তে সমঝোতার ভূমিকার বিষয়ে একটি উন্মুক্ত বিতর্ককে বক্তব্যে জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন এই বিষয়গুলি উত্থাপন করেছেন।
পুনর্মিলনের বিভিন্ন সফল মডেলের কথা উল্লেখ করে মাসুদ মিয়ানমারকে সমাজের একটি সম্পূর্ণ পদ্ধতির মাধ্যমে এবং পুনর্মিলন প্রক্রিয়াতে স্বচ্ছতা ও বস্তুনিষ্ঠতা নিশ্চিত করে সুস্পষ্ট সংজ্ঞায়িত পুনর্মিলনী কৌশল গ্রহণ করার আহ্বান জানান।

এফএম মোমেন রাষ্ট্রদূতদের সাথে বৈঠক করেছিলেন, কারণ মিয়ানমার সরকার বিভিন্ন আন্তর্জাতিক আদালতে দেশটির নেতৃত্ব এবং তার নেতৃত্বের বিচারের প্রচেষ্টা করার কারণে তার আন্তর্জাতিক ভাবমূর্তির মারাত্মক ক্ষতির বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।
মিয়ানমারের ভাবমূর্তি ‘আন্তর্জাতিকভাবে মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে’, মিয়ানমার সরকারের মুখপাত্র জাও এইচটি বলেছেন, জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক ফৌজদারি আদালতে দেশ এবং এর নেতৃত্বের বিরুদ্ধে বিচারের জন্য আন্তর্জাতিক অধিকার গোষ্ঠীর একাধিক প্রচেষ্টার প্রতিক্রিয়ায় মিয়ানমার সরকারের মুখপাত্র বলেছেন

ইয়াঙ্গুনের দ্য ইররাওয়াদির এক প্রতিবেদন অনুযায়ী 16 ই নভেম্বর প্রকাশিত আন্তর্জাতিক আদালত ও আর্জেন্টিনার একটি আদালত গত সপ্তাহে।
মিয়ানমারের জন্য জাতিসংঘের স্বতন্ত্র তদন্ত মেকানিজমের একটি প্রতিনিধি দল 9 নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া প্রায় এক সপ্তাহের জন্য বাংলাদেশে রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শন করে এই অঞ্চলে প্রথম মিশন পরিচালনা করেছিল, মিয়ানমার প্রক্রিয়াটির এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।
মিয়ানমার মেকানিজমের প্রধান নিকোলাস কাউজিয়ান বলেছেন, মিশনটি প্রকৃতিগতভাবে অনুসন্ধানী ছিল এবং ‘এটি জাতীয় ও আন্তর্জাতিক আদালতের কর্তৃপক্ষের সাথে মামলা চালানোর জন্য কাজ করবে,’ জেনেভা থেকে ১৮ নভেম্বর প্রকাশিত এক সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে।
রাখাইনে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর দ্বারা পরিচালিত 'সুরক্ষা অভিযান' চলাকালীন নিরবচ্ছিন্ন হত্যা, অগ্নিসংযোগ ও ধর্ষণ থেকে পালিয়ে 7,০০,০০০ এরও বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে, জাতিসংঘ জাতিগত নির্মূল ও গণহত্যা হিসাবে আগস্ট করেছে, যা আগস্ট থেকে শুরু হয়েছিল 25, 2017।

গত বছরের ১৫ নভেম্বর রোহিঙ্গাদের প্রথম ব্যাচ প্রেরণের জন্য তাদের প্রথম প্রয়াসে ইউএনএইচসিআর এবং সরকার ব্যর্থ হয়েছিল কারণ রাখাইনে ফিরে যাওয়ার পরিবেশের অভাবে উল্লেখ করে কেউ ফিরে যেতে রাজি হয়নি।
চলমান রোহিঙ্গা প্রবাহ জাতিসংঘের সংস্থা ও বাংলাদেশ কর্তৃপক্ষের অনুমান অনুসারে বাংলাদেশে নিবন্ধিত মিয়ানমার নাগরিক এবং নিবন্ধিত শরণার্থীদের সংখ্যা প্রায় 1.2 মিলিয়নে নিয়েছে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 RTNBD.net