পৌরসভার ২২ লাখ টাকা নিয়ে উধাও কর্মচারী, মামলা না দিয়ে মেয়রের সমঝোতা

IPL ের সকল খেলা  লাইভ দেখু'ন এই লিংকে  rtnbd.net/live

নরসিংদী মনোহরদীতে পৌরসভার জনগণের কাছ থেকে আদায়কৃত ভ্যাট ট্যাক্সের ও সচিবের ব্যক্তিগত মিলিয়ে প্রায় ২২ লাখ টাকা নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে তুহিন নামে পৌরসভার এক চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীর বিরুদ্ধে। বিষয়টি আবার গোপনে সমঝোতার অভিযোগ পাওয়া গেছে মেয়র আমিনুর রশিদ সুজনের বিরুদ্ধে। এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন পৌরসভার দায়িত্বরত সচিব মো. ইসমাইল হোসেন। তিনি বলেন, ঈদের পরে আমার ব্যক্তিগত ১৬ লাখ ৩০ হাজার টাকা আমার অ্যাকাউন্টে ও অফিসের ভ্যাট ও ট্যাক্সের আদায়কৃত পাঁচ লাখ ৬১ হাজার টাকাসহ মোট ২১ লাখ ৯১ হাজার টাকা পৌরসভার অ্যাকাউন্টে জমা দেওয়ার জন্য তুহিনকে পাঠানো হয়। পরে আমার প্রয়োজনে ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন করতে গিয়ে দেখি অ্যাকাউন্টে কোনো টাকা নাই। পরে জানতে পারি সে ব্যাংকে কোনো টাকা জমা দেয়নি। তুহিনকে ফোন দিলে তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। এরপর থেকে তিনি অফিসেও আসেন না। বাড়িতে খোঁজ নিয়ে জানা যায় তিনি বাড়ি থেকে পালিয়ে কক্সবাজার চলে গেছেন। এখন তিনি কোথায় আছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, গত সোমবার তাকে কক্সবাজার থেকে ধরে আনা হয়েছে। এখন তিনি পৌর মেয়র আমিনুর রশিদ সুজনের হেফাজতে রয়েছেন। এ বিষয়ে থানায় কোনো লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়নি। থানায় কোনো অভিযোগ দেওয়া হবে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, মেয়র এ বিষয়ে কোনো প্রকার বাড়াবাড়ি করতে নিষেধ করেছেন। এটা ঘরোয়াভাবে বসে মীমাংসা করা হবে। তিনি যদি কোনো প্রকার ফয়সালা না দিতে পারেন, তাহলে আমি আইনের আশ্রয় নেব। এ বিষয়ে পৌর মেয়র আমিনুর রশিদ সুজন বলেন, টাকা জমা দিতে যাওয়ার সময় সে তার ভাইয়ের দুর্ঘটনার খবর পায়। পরে সে টাকা জমা না দিয়ে চিকিৎসায় ব্যয় করে ফেলে। পরে সে টাকা জমা দিয়ে দেয়। এটা অফিসিয়ালভাবে মীমাংসা হয়ে গেছে। সে এখন অফিসও করছে বলে তিনি মন্তব্য করেন। Great)

Check Also

রাশিয়ার ওপর আরও নিষেধাজ্ঞা দিচ্ছে জি৭, লক্ষ্য জ্বালানি ও বাণিজ্য

রাশিয়ার ওপর বিভিন্ন সময় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে ধনী দেশগুলোর জোট জি৭, তবে দেশটি নানাভাবে তা …

One comment

  1. Md Ziaur Rahman

    নিশ্চয়ই মেয়র এর সাথে যুক্ত।