দুর্নীতিনর মামলায় কাস্টমস কর্মকর্তার কারাদণ্ড

দুর্নীতিনর মামলায় কাস্টমস কর্মকর্তার কারাদণ্ড

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় জামালপুরের বকশীগঞ্জের ধানুয়া কামালপুরের বরখাস্তকৃত কাস্টমস পরিদর্শক রফিকুল ইসলামকে ১০ বছর ও মেসার্স শেরপুর ট্রেডার্স এর স্বত্বাধিকারী ইমারুল হককে ৩ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে ৫ লাখ ১২হাজার ২২৮ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে জামালপুর বিশেষ জজ আদালতের বিচারক জহিরুল কবির এ রায় প্রদান করেন। দণ্ডপ্রাপ্ত রফিকুল ইসলাম গফরগাঁও এলাকার মৃত আসমত আলীর ছেলে ও ইমরুল হক দিনাজপুরের হাকিমপুর গ্রামের আফাজ উদ্দীনের ছেলে ।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, রফিকুল ইসলাম ২০০৩ সালে ধানুয়া কামালপুরের কাস্টমস পরিদর্শক হিসেবে কর্মরত থাকাকালে তার মাধ্যমে পাথর ব্যবসায়ী ইমরুল হক পাথর আমদানি করার সময় মোট ৫ লাখ ১২ হাজার ২২৮ টাকা আত্মসাৎ করেন। এ ঘটনায় দুদক বাদী হয়ে কাস্টমস পরিদর্শক রফিকুল ইসলাম ও পাথর ব্যবসায়ী ইমরুল হকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্তকালে রফিকুল ইসলাম ও ইমরুল হকের বিরুদ্ধে আত্মসাতের প্রমাণ পাওয়া যায়। দীর্ঘ তদন্ত ও বিচারিক আদালতে স্বাক্ষী প্রমানের ভিত্তিতে রফিকুল ইসলামকে ১০ বছর কারাদণ্ড ও ৫ লাখ ১২ হাজার ২২৮ টাকা অর্থদণ্ড ও অনাদায়ে ২ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দেন আদালত। সেই সঙ্গে পাথর ব্যবসায়ী ইমরুল হককে ৩ বছরের কারাদণ্ড ও ৫ লাখ ১২ হাজার ২২৮ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ৬ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 RTNBD.net