হাসপাতালে যথাযথ চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে না, আমি নিজেই তার প্রমাণ: স্বাস্থ্য সচিব

987

হাসপাতালে যে মানের চিকিৎসা দেয়া উচিত যথাযথভাবে তা দেয়া হচ্ছে না, আমি নিজেই তার প্রমাণ বলে মন্তব্য করেছেন স্বাস্থ্য সচিব মো. আব্দুল মান্নান।
হাসপাতালে রোগী ভর্তি হতে পারছে না, এই সমস্যা বাংলাদেশে প্রকট এমন মন্তব্য করেছেন স্বাস্থ্য সচিব মো. আব্দুল মান্নান। সোমবার (৬ জুলাই) রাজধানীর মহাখালীতে জাতীয় বক্ষব্যাধি এবং শেখ রাসেল জাতীয় গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউট পরিদর্শনে গিয়ে এসব কথা বলেন স্বাস্থ্য সচিব। এছাড়া করোনার চিকিৎসায় প্লাজমা নিয়ে কেউ যেন ব্যবসা করতে না পারে সেজন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সার্বক্ষণিক তদারকি করছে বলেও জানান আব্দুল মান্নান।

করোনা পরীক্ষার সংকটে ক্যান্সারসহ জটিল রোগে আক্রান্তদের চিকিৎসা ব্যাহত হচ্ছে- এ অবস্থায় যক্ষা শনাক্তের জিন এক্সপার্ট মেশিন দিয়ে একঘন্টায় করোনার নমুনা পরীক্ষা শুরুর কথা জানিয়েছে জাতীয় বক্ষব্যাধি ইন্সটিটিউ। শনিবার ডিবিসি নিউজে এ খবর প্রচারিত হলে ওই ইন্সটিটিউট পরিদর্শনে যান স্বাস্থ্য সচিব।

এ সময় সেবার মনোভাব নিয়ে মানুষের পাশে দাঁড়ানোর জন্য চিকিৎসকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে সচিব বলেন, ‘চিকিৎসকরা যদি দায়িত্বে গাফিলতি করে তাহলে সাধারণ মানুষ কোথায় যাবে।’

সাধারণ মানুষকে সেবা দেয়া নিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মধ্যে সমন্বয়হীনতা ছিলো। আর যেন কোনো সমন্বয়হীনতা না থাকে সে লক্ষ্যে কাজ করে যাওয়ার কথাও জানান স্বাস্থ্য সচিব।

স্বাস্থ্যখাতে ঘুষ, দুর্নীতি ও সিন্ডিকেট হয়তো থাকবে। তবে, যতদিন বাঁচবেন ততদিন মানুষের কল্যাণে কাজ করে যেতে চান স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সেবা বিভাগের নতুন সচিব মো. আব্দুল মান্নান।

পরে কোভিড নাইনটিন চিকিৎসার জন্য নির্ধারিত শেখ রাসেল জাতীয় গ্যাস্ট্রোলিভার ইনস্টিটিউ ও হাসপাতালে কয়েকটি হাসপাতালের পরিচালকদের নিয়ে বৈঠকে বসেন তিনি।
পরে, হাসপাতালে রোগীদের সেবা না পাওয়ার অভিযোগ করে কঠোর সমালোচনা করেন স্বাস্থ্য সচিব।

এদিকে, প্রতিদিন করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়লেও, হাসপাতালে রোগী ভর্তির সংখ্যা কমছে। আক্রান্তরা বলছেন, সেবা না পাওয়ার শঙ্কা আর ভোগান্তি থেকে বাঁচতে হাসপাতালমুখো হচ্ছেন না তারা।

অন্যদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর বলছে, প্রথম দিকের আতঙ্ক কাটিয়ে উঠেছে সাধারণ মানুষ। সেই সঙ্গে সচেতনতাও বেড়েছে। তাই হাসপাতালে ভিড় কম। আর জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনা চিকিৎসায় এখনো রোগীবান্ধব হাসপাতাল গড়ে তুলতে পারেনি সরকার।

Loading...