Breaking News

করোনার র‍্যাপিড টেস্ট করার কোনো সিদ্ধান্ত নেই- স্বাস্থ্যমন্ত্রী

বাংলাদেশ সরকার করোনাভাইরাস শনাক্তের জন্য র‍্যাপিড টেস্ট করার অনুমতি না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তবে সরকারি হাসপাতাল ও ল্যাবরেটরিতে অ্যান্টিজেন টেস্ট শুরু করা হবে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এই তথ্য জানিয়েছেন।

সচিবালয়ে একটি সভা শেষে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, ‘করোনার র‍্যাপিড টেস্ট করার কোনো সিদ্ধান্ত নেই, তবে এখন থেকে অ্যান্টিজেন টেস্ট করা হবে। অ্যান্টিবডি টেস্ট করা হবে না। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনার পরে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

শরীরে অ্যান্টিবডির উপস্থিতি পরীক্ষার জন্য সাধারণত র‍্যাপিড টেস্ট করা হয়ে থাকে। শরীরের ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ ঘটলে নিজে থেকে একপ্রকার প্রতিরোধী ক্ষমতার তৈরি হয়। সেটাই অ্যান্টিবডি।

অ্যান্টিজেন হচ্ছে ভাইরাসের প্রোটিন, যা শরীরের ভেতর প্রবেশ করে কোষের প্রোটিন তৈরির পদ্ধতি ব্যবহার করে নিজের প্রতিলিপি তৈরি করতে শুরু করে। শরীরের ভেতর ভাইরাস, ব্যাকটেরিয়া, প্যারাসাইটস প্রবেশ করলেই শরীর সেটাকে অ্যান্টিজেন হিসেবে গণ্য করে।

কারোনা পরীক্ষায় অ্যান্টিজেন পাওয়া গেলে তিনি ভাইরাসে আক্রান্ত বলে ধরে নেওয়া হয়। অ্যান্টিবডি অ্যান্টিজেনকে ঠেকাতে কাজ করে। প্লাজমা থেরাপি অথবা টিকা প্রয়োগের মাধ্যমে আসলে সেই অ্যান্টিবডি তৈরিতে সহায়তা করা হয়।

Check Also

পরীক্ষা স্থগিতের বিজ্ঞপ্তি ভুয়া, সতর্কতায় মাউশির গণবিজ্ঞপ্তি

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) নাম ব্যবহার করে মিথ্যা বিজ্ঞপ্তি বা নোটিশ প্রচার করা হচ্ছে। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.