অনেক আশংকা থাকলেও তৃতীয় বিশ্বযু’দ্ধ এড়ানো গেছে: অ্যান্তোনিও গুতেরেস

48

মঙ্গলবার জাতিসংঘের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেন, আধুনিক ইতিহাসের বহু বছর কেটে গেলেও আর কখনো আমরা বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশগুলোকে সা’মরিক ল’ড়াইয়ে লিপ্ত হতে দেখিনি।

এটি জাতিসংঘ প্রতিষ্ঠার সবচেয়ে বড় অর্জন। এ অর্জন নিয়ে সদস্য রাষ্ট্রগুলো গর্ব করতে পারে।

বিশ্ব শাসন ব্যবস্থা উন্নয়নে একত্রে কাজের প্রচেষ্টা চালানোর আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, জাতিসংঘ সকলের উন্নতি সাধনের চেষ্টায় অভিন্ন মূল্যবোধের ভিত্তি আন্তর্জাতিক সহযোগিতা জোরদার এবং দায়িত্ব ভাগাভাগির মাধ্যমে হাতে হাত রেখে এগিয়ে চলে।

কেউ বিশ্ব সরকার ব্যবস্থা চাই না। আমরা বিশ্ব শাসন ব্যবস্থার উন্নয়নে অবশ্যই একত্রে কাজ করবো।
জাতিসংঘ হচ্ছে একটি উন্নত বিশ্ব গড়ে তোলার বাতিঘর। এর আদর্শ ভাবনা হচ্ছে বিশ্বে শান্তি, ন্যায়বিচার, সমতা ও মর্যদা প্রতিষ্ঠা করা।

দু’টি বিশ্বযু’দ্ধ, লাখ লাখ মানুষের মৃত্যু এবং ভয়ঙ্কর হ’ত্যাযজ্ঞের প্রেক্ষাপটে বিশ্ব নেতাদের সহযোগিতা ও আইনের শাসন প্রতিপালনের প্রতিশ্রুতি মধ্যদিয়ে এ আন্তর্জাতিক সংস্থা প্রতিষ্ঠা করা হয়।

সম্প্রতি ২১ শতকের ভিশন নিয়ে সাসটেইনেবল ডেভলপমেন্ট গোলস এবং প্যারিস এগ্রিমেন্ট অন ক্লাইমেট চেঞ্জের ওপর সর্বসম্মত চুক্তি স্বাক্ষর করা হয়েছে।

জাতিসংঘের ঐতিহাসিক অর্জনের মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন শান্তি চুক্তি ও শান্তিরক্ষা, উপনিবেশ শাসনের অবসান, মানবাধিকার রক্ষা, রোগ নির্মূল, দারিদ্র্য দূরিকরণ, প্রগতিশীল আন্তর্জাতিক আইনের উন্নয়ন, পরিবেশ ও আমাদের এই বিশ্ব রক্ষায় যুগান্তকারী বিভিন্ন চুক্তি। সম্পাদনা : রায়হান রাজীব