ওয়াসা’র এমডির ‘১৪ বাড়ি যুক্তরাষ্ট্রে’

BPL 2023 লাইভ দেখুন এই লিংকে  rtnbd.net/live

ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রকৌশলী তাকসিম এ খানের যুক্তরাষ্ট্রে ১৪টি বাড়ি কেনার বিষয়ে দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) দাখিল করা দুটি অভিযোগের অনুসন্ধানের অগ্রগতি জানতে চেয়েছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে দুদককে ১৫ দিনের মধ্যে এ বিষয়ে জানাতে নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

এ বিষয়ে দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন আমলে নিয়ে সোমবার (৯ জানুয়ারি) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি খিজির হায়াতের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ মৌখিকভাবে এ আদেশ দেন।

আদালতে পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন নজরে আনেন দুদকের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। এসময় রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল আন্না খানম কলি।

এর আগে আজ সোমবার (৯ জানুয়ারি) একটি জাতীয় দৈনিকে ‘ওয়াসার তাকসিমের যুক্তরাষ্ট্রে ১৪ বাড়ি!’ শিরোনামে সংবাদ প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এতে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের একাধিক শহরে ১৪টি বাড়ি কিনেছেন তাকসিম। সব বাড়ির দাম টাকার অঙ্কে হাজার কোটি ছাড়াবে। দেশ থেকে অর্থ পাচার করে তিনি এসব বাড়ির মালিক হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। বাড়ি কেনার অর্থের উৎস ও লেনদেন প্রক্রিয়ার তথ্য অনুসন্ধানে নেমেছে ইন্টারপোলসহ একাধিক গোয়েন্দা সংস্থা।

যুক্তরাষ্ট্রে ১৪ বাড়ি কেনা এবং অর্থ পাচারকারী হিসেবে আন্তর্জাতিক গোয়েন্দা সংস্থার তালিকায় তাকসিম খানের নাম থাকা নিয়ে সম্প্রতি দুটি অভিযোগ জমা পড়ে দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক)। অভিযোগে কিছু বাড়ির সুনির্দিষ্ট ঠিকানা, ছবি, কোন বাড়ি কখন ও কত টাকায় কেনা- তা উল্লেখ করা হয়েছে। তাকসিম সম্পর্কে যুক্তরাষ্ট্রের সেন্ট্রাল ইন্টেলিজেন্স এজেন্সির (সিআইএ) ‘গভর্নমেন্ট ওয়াচ নোটিশ’-এর একটি কপি অভিযোগের সঙ্গে জুড়ে দেওয়া হয়েছে।

সিআইএসহ যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অব জাস্টিস (ডিওজে), ফেডারেল ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (এফবিআই), দেশটির অন্যান্য সংস্থা ও ইন্টারন্যাশনাল ক্রিমিনাল পুলিশ অর্গানাইজেশন (ইন্টারপোল) তাকসিম এ খানের বিষয়ে কাজ করছে বলে ওই নোটিশে উল্লেখ করা হয়।

Check Also

বিদ্যুৎ ও গ্যাসের দাম সরাসরি বাড়ানো-কমানোর ক্ষমতা পেল সরকার

বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (সংশোধন), বিল জাতীয় সংসদে পাস হয়েছে। এর ফলে বিশেষ ক্ষেত্রে বিদ্যুৎ …

20 comments

  1. শালা চোর কোথাকার

  2. অবাক হই যখন দেখি দুর্নীতিগ্রস্থ সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সমাজের অন্যান্য সামাজিক কাজে যুক্ত হয় | যারা জনগণের ট্যাক্স ভ্যাট এর টাকায় বেতন নিয়ে নিজের কর্মস্থলে দুর্নীতি করে তারা কিভাবে অন্যান্য সামাজিক কাজে নীতি বজায় রাখবে ? যারা এদের কাছ থেকে ভালো কিছু আশা করে, খবর নিলে দেখা যাবে তারাও এদের সাথে কোনো একভাবে দুর্নীতি ও জুলুমে সমৃক্ত | সমাজের সকল সামাজিক কার্যক্রম থেকে দুর্নীতিগ্রস্থ সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বাদ দেয়ার তীব্র দাবি জানাচ্ছি |

  3. পানি চোর।

  4. জোরছে বলো সবাই জয় বাংলা

  5. 🤔🤔 এই গুলান সরকারি কোয়ার্টার নয় তো??

  6. Candai koita jati janta chai ???

  7. চোরা, করছে কি।

  8. জনগণের টাকা লুটপাট করে বিদেশে বহু বাড়ি ঘর করেছেন কাফনের তো পকেট নেই নিবেন কেমনে।

  9. কু

  10. সরকার এই সব এখন দেখবে ও না এবং শুনবে ও না, এই টা, সরকার দেখে তারেক রহমান ও জোবায়েদার সম্পদ সেটা কি ভাবে দখল করা যায়?

  11. এটা হল ওয়াসার এমডির ডিজিটাল দুর্নীতির রোল মডেল জয় বাংলা

  12. এইসব কোন ব্যাপার না
    তারপরেও তো তেমন কিছু করতে পারে নি মাত্র ১৪ টা বাড়ি।
    ১৪০ টা হয় নি আল্লাহর কাছে শুকরিয়া আদায় করুন ১৬ কোটি মানুষ মিলে।

  13. Govt must be responsible for him. Because he has been appointed terms after terms by govt. it is ridiculous.

  14. বাড়ি করার পর নিউজ মিডিয়া, আগে কি করেছেন

  15. Good job

  16. মিঃ রফিক খান

    উনি একজন সৎ মানুষ,
    চলতি দায়িত্বের সাথে বিমান,রেলওয়ে,আয়কর,বিদ্যুৎ ও ভুমির এম ডি নিয়োগ দেয়া হোক

  17. মাএ????

  18. পিকে হালদার তাসকিন টাকা পাছার করে সরকার কি জানে না

  19. যা রটে তার কিছু হলেও ঘটে! চিরন্তন সত্য! এখানে শেখ রেহানার দেবর তাকসিম, এই পরিচয় দিয়ে শেখ রেহানা কে দোষী করার কোন মানে দেখি না। ওই চোর এখন নিজেকে রক্ষা করার জন্য শেখ রেহানার দেবর হিসেবে নাম বিক্রি করতেছে। কতটুকু কঠোর পরিশ্রম এবং হাড় ভাঙ্গার খাটুনির পর যেকোনো কেউ আমেরিকাতে একটা বাড়ির মালিক হতে পারে। এটা বাংলাদেশী – আমেরিকান সবারই জানা। কিন্তু বাংলাদেশ থেকে আমেরিকায় এতগুলো বাড়ির মালিক হওয়া, এটা তো অবিশ্বাস্য!! কিন্তু বিশ্বাস্য। গজনির আলাদিনের চেরাগ পেলেও তো মানুষ এত কিছু করতে পারে না। ও কত বড় মাপের ফকির এবং পাগল – যে তার সংক্ষিপ্ত জীবনের এত কিছু লাগতেই হবে!
    মানুষ একজন জীবনে সুন্দরভাবে চলতে কি এত কিছু দরকার হয় নাকি?????? তোর কি একটু লজ্জা করল না, আরেকজনের নাম বিক্রি করে দুর্নীতি করছোস!!!!
    তুই একটা পশুর সমান। দুই পা বিশিষ্ট অদ্ভুত পশু। ফাইন্যান্সিয়ালি কেউ সাহায্য করলেই আমি তার বিরুদ্ধে এখানকার আদালতে মামলা করতাম। লেংটা পশু।

    বাংলাদেশ সরকারের উচিত, অন্তত নিজের মান সম্মান টিকিয়ে রাখার জন্য হলেও, ওই কুলিনের, মেথরের বাচ্চার, শিলের বাচ্চার – বাংলাদেশ এবং আমেরিকাতে তার সকল সম্পদ বাজেয়াপ্ত করা উচিত। আমেরিকার কোন আদালতে তার বিরুদ্ধে মামলা করা উচিত। তার সকল ধরনের সম্পদ ক্রক করে , তাকে রাস্তার ফকির বানিয়ে দেওয়া উচিত হবে। তখন তুই হবি ল্যাংটা ফকির। এটা মানা যায় না son of bitch!!!!!! তোর খাওয়া দাওয়া হবে আজ থেকে মানুষের মলমূত্র।শুধু একজন মানুষের নয়, বিশ কোটি মানুষের মলমূত্র।

  20. আল্লাহ জালেম দের হেদায়েত দান করুন আর নয়তো ধ্বংস করুন মালিক

Leave a Reply

Your email address will not be published.