এলডিপি মহাসচিবের বাড়িতে হামলা, ককটেল বিস্ফোরণ

BPL 2023 লাইভ দেখুন এই লিংকে  rtnbd.net/live

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিমের বাড়িতে হামলা ও ককটেল বিস্ফোরণের অভিযোগ উঠেছে। এ সময় শতাধিক প্লাস্টিকের চেয়ার, বাসার জানালার কাঁচ ভাঙচুর ও সিসি ক্যামেরা ছিনিয়ে নিয়ে যায় হামলাকারীরা। শনিবার (০৭ জানুয়ারি) বিকেলে উপজেলার পূর্ব করপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

তবে স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা জানান, তারা শুধু সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছেন। এলডিপি ও বিএনপির জোটগত কোন্দলের কারণে হামলার ঘটনা ঘটেছে।

শাহাদাত হোসেন সেলিমের ভাষ্য, তিনি নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় করার জন্য আয়োজন করেছিলেন। এ সময় করপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তসলিম হোসেনের নেতৃত্বে ৩০-৪০ জন মোটরসাইকেলযোগে গিয়ে হামলা ও ভাঙচুর চালায়। এতে বাসার জানালার কাঁচ ও শতাধিক প্লাস্টিকের চেয়ার ভাঙচুর করে হামলাকারীরা। পরে তারা বেশ কিছু ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে চলে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বিকেল ৩টার দিকে সেলিমের বাড়িতে মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। এ সময় হঠাৎ করে আওয়ামী লীগ নেতা তসলিমের নেতৃত্বে মোটরসাইকেল বহর এসে অতর্কিত হামলা ও কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে।

আওয়ামী লীগ নেতা তসলিম হোসেন বলেন, ‘আমরা প্রতিবাদ মিছিল করেছি, সেলিমের বাড়িতে হামলা করিনি। জোটগত কোন্দলের কারণেই বিএনপি নেতা ভিপি রহিম ও সাহাবুদ্দিন তুর্কির লোকজন হামলা করেছে।’

এ ব্যাপারে সহকারী পুলিশ সুপার (রায়পুর সার্কেল) আবদুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। তবে কারা ঘটনাটি ঘটিয়েছে তা তদন্ত চলছে।

প্রসঙ্গত, লক্ষ্মীপুর-১ (রামগঞ্জ) আসনে বিএনপি থেকে জোটগত কারণে এলডিপি নেতা শাহাদাত হোসেন সেলিম আলোচনায় রয়েছেন। গেল বছরের ৩০ অক্টোবর রামগঞ্জ উপজেলা ও পৌর বিএনপির নতুন কমিটি দেওয়া হয়। সেখানে সেলিমের লোকজনকেও পদে রাখা হয়। এর বিরুদ্ধে সাবেক এমপি ও উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক নাজিম উদ্দিনসহ নেতারা আন্দোলন করে। এতে ২৮ নভেম্বর জেলা বিএনপি নাজিম উদ্দিনসহ পাঁচ নেতাকে বহিষ্কার করে। এর আগে গত ৪ নভেম্বর রাতে দুর্বৃত্তরা সেলিমের বাড়িতে হামলা ও ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়।

Check Also

হিরো আলমের অভিযোগ খতিয়ে দেখতে নির্বাচন কর্মকর্তাকে সিইসির ফোন

বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনের উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল হোসেন ওরফে হিরো আলমের অভিযোগ খতিয়ে দেখার নির্দেশ …

2 comments

  1. এইদেশে কনো মানুষি নিরাপদ না জতদিন মাফিয়া সরকার থাকবে

  2. এইদেশে কনো মানুষি নিরাপদ না জতদিন মাফিয়া সরকার থাকবে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *