ড. কামালের জোটে যোগ দেওয়া জীবনের শ্রেষ্ঠ ভুল : কাদের সিদ্দিকী

BPL 2023 লাইভ দেখুন এই লিংকে  rtnbd.net/live

গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে গঠিত জোটে যোগ দিয়ে নির্বাচনে অংশ নেওয়াকে জীবনের শ্রেষ্ঠ ভুল বলে আখ্যায়িত করেছেন কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী।

তিনি বলেন, অনেকে মনে করে বিএনপির সঙ্গে জোট করে নির্বাচনে গিয়েছিলাম। আমি কোনো দিন বিএনপির সঙ্গে যাইনি। ড. কামাল হোসেনকে দেখে, তার নেতৃত্বাধীন জোটে গিয়েছিলাম।রোববার (৮ জানুয়ারি) দুপুরে জাতীয় পার্টির (জেপি) ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিল অধিবেশনে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অধিবেশনটি রমনার ইঞ্জিনিয়ার ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। অধিবেশনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।

কাদের সিদ্দিকী বলেন, আমার যখন মনে হয়েছে ড. কামাল হোসেন বঙ্গবন্ধুর ভক্ত কিন্তু নেতা নন, তার নেতৃত্ব দেওয়ার অবস্থা নেই। সবার শেষে জোটে গিয়েছি, সবার আগে বের হয়ে এসেছি। আমার জীবনে শ্রেষ্ঠ ভুল ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন জোটে যোগ দেওয়া।

তিনি বলেন, আমি যখন এই সম্মেলনে আছি, তখন বক্তারা বার বার বলেছেন, আমাকে নাকি আদর করে বঙ্গবন্ধু বজ্র বলে ডাকতেন। কথাটা ভুল। বঙ্গবন্ধু আমাকে প্রচণ্ড আদর করেছেন, যত্ন করেছেন। তবে তিনি কখনো আমাকে বজ্র বলে ডাকেননি। তিনি কাদের বলেই ডাকতেন। হ্যাঁ, আমাকে বজ্র বলে ডাকতেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তাকে নিয়ে আমি গর্ববোধ করি। এখন আমাকে বজ্র বলে ডাকার খুব বেশি মানুষ নেই।

তিনি আরও বলেন, আমার কোনো বড় বোন ছিল না। বঙ্গবন্ধু নিহত হওয়ার পর দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে যখন দেখা করি, তিনি আমাকে ভাই বলে ডেকেছিলেন। সেদিন তিনি বলেছিলেন, তোমাকে ভাই বলে ডেকেছি, আজীবন ভাইয়ের মর্যাদা রক্ষা করব। আমি কিন্তু এতো কাঁচা না। আমাকে যে ভাই বলে ডেকে মর্যাদা রক্ষা করতে পারে আমিও ভাইয়ের মর্যাদা রক্ষা করতে পারি। তার জন্য জীবন দিতে পারি।

বঙ্গবীর আরও বলেন, বাংলাদেশ যতদিন থাকবে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ততদিন চলতে হবে। সেখানে নতুন করে মেরামত করার কিছু নেই।

তিনি বলেন, আমি সব সময় ষড়যন্ত্রের শিকার। আমার মৃত্যু পর্যন্ত ষড়যন্ত্র আমাকে ছাড়বে না। আমি জীবনে কোনো দিন ষড়যন্ত্র করব না।

জেপির সভাপতি আনোয়ার হোসেন মঞ্জুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন ১৪ দলীয় জোটের সমন্বয়ক ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা আমির হোসেন আমু, ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু, বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, জেপির সাধারণ সম্পাদক শেখ শহিদুল ইসলাম, গণতান্ত্রিক পাটির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন, বাসদের আহ্বায়ক রেজাউর রশিদ খান প্রমুখ।

Check Also

হিরো আলমের অভিযোগ খতিয়ে দেখতে নির্বাচন কর্মকর্তাকে সিইসির ফোন

বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনের উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল হোসেন ওরফে হিরো আলমের অভিযোগ খতিয়ে দেখার নির্দেশ …

5 comments

  1. চামচা মানি ঠিক আছে এখন কিছু পায়ে আসা করা জাই

  2. ড. আব্দুল মান্নান

    এবার আ লীগের পালে হাওয়া লাগান, বোধ করি একই রকম

  3. গামছা লীগ

  4. কাদের সিদ্দিকী ঝৃন খেলাপি অবৈধ সরকারের হালুয়া রুটির ভাগীদার সুবিধা ভোগী দালাল গনতন্ত্র হত্যাকারীর সহযোগী

  5. বাঘা ভাই এখন বলবেন কি আওয়ামীলীগ ছেড়ে ল্যাংটা হওয়াটা গৌরবের ছিল না কলকের ছিল!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *