এক মাস পর কারামুক্ত ফখরুল–আব্বাস

BPL 2023 লাইভ দেখুন এই লিংকে  rtnbd.net/live

এক মাস পর কারাগার থেকে মুক্তি পেলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। আজ সোমবার সন্ধ্যা ৬টার আগে কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে বের হন বিএনপির শীর্ষস্থানীয় এই দুই নেতা।

এর আগে বিকেল সোয়া ৪টার দিকে মির্জা ফখরুল ও আব্বাসকে দেওয়া উচ্চ আদালতের জামিনের কাগজপত্র ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে পৌঁছায়।

বিএনপির ঢাকা বিভাগীয় সমাবেশ সামনে রেখে গত ৭ ডিসেম্বর নয়াপল্টনে বিএনপির নেতা-কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়। এতে একজন নিহত এবং অর্ধ শতাধিক ব্যক্তি আহত হন।

পরদিন ৮ ডিসেম্বর গভীর রাতে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও মির্জা আব্বাসকে তাঁদের বাসা থেকে ধরে নিয়ে যায় পুলিশ। পরে তাঁদের ৭ ডিসেম্বরের সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশের করা মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়। এরপর তাঁদের জামিন আবেদন ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতে তিনবার নাকচ হয়। পরে বিএনপির এই দুই নেতার জামিনের জন্য উচ্চ আদালতে যান তাঁদের আইনজীবীরা।

গত মঙ্গলবার হাইকোর্ট রুলসহ দুজনের ছয় মাসের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন মঞ্জুর করে আদেশ দেন। এই আদেশ স্থগিত চেয়ে রাষ্ট্রপক্ষ পরদিন বুধবার আবেদন করে, যা আপিল বিভাগের চেম্বার আদালতে শুনানির জন্য ওঠে। চেম্বার আদালত ওই আবেদন আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য পাঠান।

প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বিভাগ গতকাল বিএনপির এই দুই নেতার ছয় মাসের জামিন আদেশ বহাল রাখেন।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ও মির্জা আব্বাস জামিনে ছাড়া পাচ্ছেন—এ খবর গতকালই দলটির নেতা–কর্মীদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। নেতাদের স্বাগত জানাতে আজ কারাগারের ফটকে জড়ো হন বিপুলসংখ্যক নেতা–কর্মী।

কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়ার পর বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। আজ সোমবার সন্ধ্যায় কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনে
কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়ার পর বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস। আজ সোমবার সন্ধ্যায় কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের সামনেছবি: সাজিদ হোসেন
সকালে দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের রাজেন্দ্রপুর এলাকায় ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, দুই নেতার জামিনের সংবাদ পেয়ে কেরানীগঞ্জ ও ঢাকার আশপাশের বিএনপির নেতা-কর্মীরা দুপুর থেকে কারাগার প্রাঙ্গণে এসে জড়ো হয়েছেন।

মির্জা ফখরুল ও মির্জা আব্বাসের জামিনের বিষয়টি কেন্দ্র করে কারাগার কর্তৃপক্ষ কারাগার এলাকায় বিশেষ নিরাপত্তাব্যবস্থা গ্রহণ করে।

কারাগারে আসা বন্দীদের আত্মীয়স্বজন ও দর্শনার্থীদের কারাগার এলাকায় প্রবেশকালে তল্লাশি করা হয়। বিকেল থেকে মির্জা আব্বাসের স্ত্রী আফরোজা আব্বাস কারাগারের ফটকে অপেক্ষা করেন।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের ডেপুটি জেলার আব্দুস সেলিম প্রথম আলোকে বলেন, আজ বিকেল চারটা ২০ মিনিটে বিএনপির দুই নেতা মির্জা ফখরুল ইসলাম ও মির্জা আব্বাসের জামিননামার কাগজপত্র কারাগারে পৌঁছায়।

Check Also

হিরো আলমের অভিযোগ খতিয়ে দেখতে নির্বাচন কর্মকর্তাকে সিইসির ফোন

বগুড়া-৪ (কাহালু-নন্দীগ্রাম) আসনের উপনির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল হোসেন ওরফে হিরো আলমের অভিযোগ খতিয়ে দেখার নির্দেশ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *