ক্রেমলিনে ড্রোন হামলার পরদিনই কিয়েভজুড়ে বিস্ফোরণ

IPL ের সকল খেলা  লাইভ দেখু'ন এই লিংকে  rtnbd.net/live

ক্রেমলিনে ড্রোন হামলা চালানোর জন্য রাশিয়া ইউক্রেনকে অভিযুক্ত করার পরদিনই কিয়েভ ও ইউক্রেনের অন্যান্য শহরে বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে। ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসি জানিয়েছে, ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর জাপোরিঝিয়া এবং ওদেসাতেও হামলা হয়েছে।ইউক্রেনজুড়ে এমন সময় বিমান হামলা হলো যখন দেশটির প্রেসিডেন্ট দেশে নেই। প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি এখন নেদারল্যান্ডস সফরে রয়েছেন। ইউক্রেনে রুশ বাহিনীর যুদ্ধাপরাধের তদন্তকারী প্রতিষ্ঠান আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতেও তাঁর যাওয়ার কথা রয়েছে।গতকাল বুধবার রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে হ'ত্যার উদ্দেশ্যে ক্রেমলিনে ইউক্রেন ড্রোন হামলা চালিয়েছে বলে অভিযোগ করে মস্কো। রুশ প্রেসিডেন্টের কার্যালয় জানায়, পুতিনের বাসভবন ক্রেমলিন দুর্গে ইউক্রেনের দুটি ড্রোন হামলা চালিয়েছে ইউক্রেন। প্রতিরক্ষা বাহিনী তাৎক্ষণিকভাবে ড্রোন দুটি ভূপাতিত করেছে।তবে ক্রেমলিনে হামলার কথা নাকচ করেছে ইউক্রেন। প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি ফিনল্যান্ড থেকে গতকাল বুধবার বলেছেন, ‘আমরা পুতিন কিংবা মস্কোয় হামলা করিনি। আমরা আমাদের ভূখণ্ডে যুদ্ধ করছি এবং নিজেদের গ্রাম ও শহর রক্ষা করছি।’এ ছাড়া জেলেনস্কির উপদেষ্টা মিখাইলো পোদোলিয়াক বলেছেন, ‘মস্কোতে ইউক্রেনের হামলার কোনো কারণ নেই। কথিত ওই ঘটনার সঙ্গে কিয়েভের বিন্দুমাত্র সম্পর্ক থাকার প্রশ্নই ওঠে না। তবে ঘটনাটি এই ইঙ্গিত দেয় যে, রাশিয়া ইউক্রেনে বড় আকারের সন্ত্রাসী হামলার উসকানির প্রস্তুতি নিচ্ছে।’উল্লেখ্য, প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি সুইডেন, নরওয়ে, ডেনমার্ক ও আইসল্যান্ডের নেতাদের সঙ্গে দেখা করার উদ্দেশ্যে গত বুধবার কিয়েভ ছাড়েন। তাঁর এ সফরকে আকস্মিক বলছেন অনেকে।নেদারল্যান্ডস সফরের সময় জেলেনস্কি ডাচ প্রধানমন্ত্রী মার্ক রুটের সঙ্গে দেখা করবেন বলে আশা করা হচ্ছে। ডাচ গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, জেলেনস্কি দূরপাল্লার অস্ত্র, যুদ্ধবিমানসহ আরও সামরিক সহায়তা বিষয়ে মার্ক রুটের সঙ্গে আলোচনা করবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।গতকাল বুধবার ক্রেমলিনে রুশ প্রেসিডেন্টের বাসভবনের ওপর ড্রোন হামলার পর রাশিয়া প্রতিশোধের হুমকি দিয়েছে। ক্রেমলিন বলেছেন, যখন যেখানে প্রয়োজন মনে করবে, সেখানে প্রতিশোধ নেবে রাশিয়া।এরপর বুধবারেই রুশ বাহিনী দক্ষিণ খেরসন অঞ্চলে হামলা চালিয়েছে। এতে অনন্ত ২১ জন নিহত হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার সকালে ইউক্রেনের অনেক অঞ্চলে বিমান হামলার সাইরেন বেজে ওঠে। রাজধানী কিয়েভ ও ওদেসায় বিস্ফোরণের খবর পাওয়া গেছে।একই সময়ে রাশিয়ার দক্ষিণাঞ্চলে একটি তেল শোধনাগারে ড্রোন হামলা হয়েছে। এতে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।কেউ কেউ বলছেন, ক্রেমলিনে কথিত ড্রোন হামলাটি রাশিয়া নিজেই উদ্দেশ্যমূলকভাবে ঘটিয়েছে। ইউক্রেনের বিমানবাহিনীর মুখপাত্র ইউরি ইহানাত বলেছেন, ইউক্রেনকে উসকানি দেওয়ার জন্য রাশিয়া নিজেই ক্রেমলিনে হামলা চালিয়েছে বলে তিনি মনে করেন।তবে এমন মন্তব্যের সঙ্গে দ্বিমত করেছেন অনেক বিশ্লেষক। তাঁদের মতে, ক্রেমলিন এমন কিছু করবে না যা তাকে দুর্বল দেখায়। এতে পুতিনের নিরাপত্তা ও রুশ বিমানবাহিনীর প্রতিরক্ষা সক্ষমতা নিয়েও প্রশ্ন উঠবে। awesome)

Check Also

গাজীপুর সিটি নির্বাচন: লাঙলের প্রার্থীর ইশতেহার ঘোষণা

গাজীপুর সিটি করপোরেশনকে একটি পরিকল্পিত নগর হিসাবে গড়ে তোলার অঙ্গীকার করে ইশতেহার ঘোষণা করেছেন সিটি …