এক ভিসাতেই মধ্যপ্রাচ্যের সব দেশ ভ্রমণের সুবিধা আসছে

IPL ের সকল খেলা  লাইভ দেখু'ন এই লিংকে  rtnbd.net/live

একক ভিসাতেই মধ্যপ্রাচ্যের সবগুলো দেশ ভ্রমণের সুবিধা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। বাহরাইনের পর্যটন মন্ত্রীর বক্তব্য অনুযায়ী, উপসাগরীয় সহযোগিতা পরিষদের (জিসিসি) দেশগুলো পর্যটকদের জন্য একটি আঞ্চলিক শেনজেন-স্টাইল ভিসা চালু করার পরিকল্পনা পর্যালোচনা করছে। এই পদক্ষেপ এই অঞ্চলের অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিকে আরও জোরদার করবে বলে তাঁরা আশা করছেন। সম্প্রতি সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাইতে অনুষ্ঠিত অ্যারাবিয়ান ট্রাভেল মার্কেট (এটিএম) শীর্ষক পর্যটন মেলায় বক্তৃতা দেওয়ার সময় মন্ত্রী ফাতিমা আল-সাইরাফি এ তথ্য জানান। তিনি বলেন, উপসাগরীয় দেশগুলোতে কীভাবে একীভূত একক ভিসা চালু করা যায় সেটি নিয়ে চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, জিসিসিভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে—সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত, বাহরাইন, ওমান এবং কাতার। বাহরাইনের পর্যটনমন্ত্রী এটিএমের একটি প্যানেলকে বলেন, ‘আমরা দেখতে পাচ্ছি, এটি (একক ভিসা) খুব শিগগিরই বাস্তবায়ন করা হবে। কারণ আমরা দেখি, মানুষ বিদেশ থেকে ইউরোপে যায় সাধারণত একটি ভিসাতেই বিভিন্ন দেশে ঘোরার সুবিধার কারণে। এই উদ্যোগ আমাদের সবার জন্যই লাভজনক হতে পারে।’ সৌদি পর্যটন কর্তৃপক্ষের সিইও ফাহদ হামিদাদ্দিন এই পরিকল্পনা সম্পর্কে বলেন, এই ভিসা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হলে ভবিষ্যৎ পর্যটকেরা একটি অঞ্চলের একাধিক দেশে ভ্রমণের দিকে ঝুঁকবে। তিনি বলেন, ‘আমি বিশ্বাস করি আগামীর ভ্রমণকারীরা সর্বদা একাধিক বিরতি, রুট এবং অঞ্চলের দিকে নজর রাখবে।’ বাহরাইন ও সৌদি আরবের বক্তব্যের সঙ্গে একমত পোষণ করে সংযুক্ত আরব আমিরাতের অর্থ মন্ত্রণালয়ের আন্ডার সেক্রেটারি আবদুল্লাহ আল-সালেহ বলেন, সমগ্র উপসাগরীয় অঞ্চলের প্রবৃদ্ধির স্বার্থে একটি আমব্রেলা (একক) প্রবিধান, নীতি এবং পদ্ধতির প্রয়োজন। এতে সবাই উপকৃত হবে। আব্দুল্লাহ আল সালেহ আরও বলেন, ‘জিসিসি ভুক্ত দেশগুলো বিশ্বাস করে, তারা যদি এই অঞ্চলে আসা দর্শনার্থীদের বিশেষ করে দূর-দূরান্তের দর্শনার্থীদের জন্য একটি ভালো অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করতে পারে, তবে মানুষ একটি দেশ ঘোরার পরিবর্তে, এই অঞ্চলের একাধিক দেশে ঘোরার পরিকল্পনা মাথায় রাখবে।’ আল-সালেহের মতে, ভ্রমণকারীরা বিধিনিষেধ ছাড়া একাধিক দেশ ভ্রমণের সুবিধার্থে জিসিসির বিভিন্ন দেশ ভ্রমণের জন্য একক প্যাকেজ পেলে আরও খুশি হবে। উল্লেখ্য, মধ্যপ্রাচ্যের অন্যান্য দেশের মতো সৌদি আরবও এমন পর্যটন শিল্পের দিকে নজর দিচ্ছে। ২০১৭ সালে সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান তিনটি গিগা-প্রকল্পের পরিকল্পনা উন্মোচন করেন। এর মধ্যে একটি রেড সি প্রজেক্ট। লোহিত সাগর প্রকল্পের আওতায় দেশের পশ্চিম উপকূল বরাবর ২৮ হাজার বর্গ-কিলোমিটার ব্যাপী এবটি বিশাল পর্যটন নির্মাণ করা হবে। ছয় বছর মেয়াদি এ প্রকল্পের কাজ অনেকখানি এগিয়ে গেছে। বলা হচ্ছে, প্রকল্প সম্পন্ন হতে আর কয়েক মাস বাকি আছে। এর মধ্যে তিনটি বিলাসীবহুল হোটেল শিগগিরই উদ্বোধন করা হবে। Great)

Check Also

গাজীপুর সিটি নির্বাচন: লাঙলের প্রার্থীর ইশতেহার ঘোষণা

গাজীপুর সিটি করপোরেশনকে একটি পরিকল্পিত নগর হিসাবে গড়ে তোলার অঙ্গীকার করে ইশতেহার ঘোষণা করেছেন সিটি …