সরকারি ২৯ প্রতিষ্ঠানকে পুঁজিবাজারে আনতে তোড়জোড়

IPL ের সকল খেলা  লাইভ দেখু'ন এই লিংকে  rtnbd.net/live

দেশের পুঁজিবাজারের আকার বৃদ্ধি ও বিনিয়োগের নতুন সুযোগ তৈরির জন্য সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোকে তালিকাভুক্তির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ লক্ষ্যে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) ২৯টি রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান চিহ্নিত করেছে। এসব প্রতিষ্ঠান পুঁজিবাজারে অন্তর্ভুক্ত করতে চলতি বছরের জানুয়ারিতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে চিঠি পাঠানো হয়। এ বিষয়ে ইতিবাচক সাড়াও মিলেছে। খুব শিগগিরই এ নিয়ে আলোচনায় বসবে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর ও বিএসইসি।এ বিষয়ে বিএসইসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলাম আজকের পত্রিকাকে বলেন, ‘আমরা চিঠি দিয়েছিলাম এ বিষয়ে আলোচনার জন্য। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব সাহেবও ফোন করেছিলেন। জানতে চেয়েছিলেন, কী করা যায়। আমরা একটা মিটিং কল করার কথা বলেছি। এ ব্যাপারে তিনি কিছু করবেন বলে মনে হচ্ছে। এখনো কিছুই চূড়ান্ত হয়নি। হয়তো দ্রুত আলোচনা হবে।’দেশের পুঁজিবাজারে ইতিমধ্যে ২২টি রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান তালিকাভুক্ত রয়েছে। এর বাইরে তালিকাভুক্তির জন্য বিএসইসির নির্বাচিত প্রতিষ্ঠানগুলো হলো বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস, যমুনা ফার্টিলাইজার কোম্পানি, কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি, ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি, নর্দার্ন ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি, নর্থওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি, প্রগতি ইন্ডাস্ট্রিজ, সাধারণ বীমা করপোরেশন, সুন্দরবন গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন, জীবন বীমা করপোরেশন, আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন কোম্পানি, বাখরাবাদ গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি, বাংলাদেশ গ্যাস ফিল্ডস কোম্পানি, কেরু অ্যান্ড কোং (বাংলাদেশ), ঢাকা পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি, ইলেকট্রিসিটি জেনারেশন কোম্পানি অব বাংলাদেশ, গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি, জালালাবাদ গ্যাস ট্রান্সমিশন অ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন সিস্টেমস, ইস্টার্ন রিফাইনারি, সিলেট গ্যাস ফিল্ড, পশ্চিমাঞ্চল গ্যাস কোম্পানি, এলপি গ্যাস, রূপান্তরিত প্রাকৃতিক গ্যাস কোম্পানি লিমিটেড (আরপিজিসিএল), বিআর পাওয়ার জোন, এসেনসিয়াল ড্রাগস, হোটেল ইন্টারন্যাশনাল, বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশনস কোম্পানি লিমিটেড (বিটিসিএল), বাংলাদেশ কেব্‌ল শিল্প এবং টেলিফোন শিল্প সংস্থা। প্রতিষ্ঠানগুলোর ব্যবসায়িক কর্মক্ষমতা, মুনাফার সক্ষমতা এবং বাজার সম্প্রসারণে অবদান রাখার সম্ভাবনা নিয়ে গবেষণার পর তালিকা তৈরি করা হয়েছে বলে দাবি বিএসইসির।বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র রেজাউল করিম বলেন, ‘পুঁজিবাজারে আসার প্রথম মাপকাঠি হলো লাভজনক হওয়া। আমরা ওয়েবসাইট ও অ্যাকাউন্টে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে কোম্পানিগুলো নির্বাচন করেছি। লাভজনক রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানগুলোকেই বাজারে আনার ওপর জোর দেওয়া হয়েছে।’এই ২৯ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৩টি তালিকাভুক্তিতে সহায়তার জন্য ইতিমধ্যে ইনভেস্টমেন্ট করপোরেশন অব বাংলাদেশ বা আইসিবির সহযোগী প্রতিষ্ঠান আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে চুক্তিও করেছে। প্রতিষ্ঠান তিনটি হলো গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি, বিআর পাওয়ার জোন ও বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি লিমিটেড (বিটিসিএল)। আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট ইস্যু ম্যানেজার হিসেবে কাজ করতে নর্দার্ন ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি এবং আশুগঞ্জ পাওয়ার স্টেশন কোম্পানির সঙ্গে আলোচনাও করছে।এ বিষয়ে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্টের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাজেদা খাতুন বলেন, ‘কোম্পানিগুলো তালিকাভুক্তির মাধ্যমে শেয়ার অফলোড করার জন্য অগ্রসর পর্যায়ে রয়েছে।’ বিএসইসি সংগৃহীত সর্বশেষ অর্থবছরের তথ্য অনুযায়ী, ২৯টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ২৬টি মুনাফা করেছে। বাকি ৩টির লোকসান হয়েছে। সবচেয়ে বেশি ২ হাজার ৩১৭ কোটি টাকা মুনাফা করেছে জীবন বীমা করপোরেশন। এ ছাড়া বেশি আয় করা প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি ১ হাজার ১৮৮ কোটি টাকা, নর্থওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানি ৯১০ কোটি টাকা, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস ৪৩৫ কোটি টাকা এবং সাধারণ বীমা করপোরেশন ২৩৮ কোটি টাকা মুনাফা করেছে।পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হলে প্রতিষ্ঠানগুলোকে করপোরেট অনুশীলন করতে হবে। নিয়মিতভাবে ব্যবসায়িক কার্যক্রমের তথ্য প্রকাশ করতে হবে, যা স্বচ্ছতা নিশ্চিত করবে, যা বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণ করবে। amazing)

Check Also

গাজীপুর সিটি নির্বাচন: লাঙলের প্রার্থীর ইশতেহার ঘোষণা

গাজীপুর সিটি করপোরেশনকে একটি পরিকল্পিত নগর হিসাবে গড়ে তোলার অঙ্গীকার করে ইশতেহার ঘোষণা করেছেন সিটি …