দুর্নীতির মামলায় সাবেক ফরাসি প্রেসিডেন্টের সাজা বহাল

IPL ের সকল খেলা  লাইভ দেখু'ন এই লিংকে  rtnbd.net/live

দুর্নীতি ও প্রভাব খাটানোর অভিযোগে ফ্রান্সের সাবেক প্রেসিডেন্ট নিকোলা সারকোজিকে ২০২১ সালে তিন বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছিল। বুধবার (১৭ মে) আগের রায় বহাল রাখার নির্দেশ দিয়েছে আপিল আদালত।২০২১ সালের রায়ে তিন বছর কারাদণ্ডের মধ্যে দুই বছর ছিল স্থগিত কারাদণ্ড। দণ্ডাদেশের বাকি এক বছর সারকোজি চাইলে বাড়িতে হাতে ইলেকট্রনিক ব্রেসলেট পরে কাটাতে পারেন বলে আপিল আদালত জানিয়েছে। রায় শোনার পর আদালত থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় সাবেক ফরাসি প্রেসিডেন্ট কোনো মন্তব্য করেননি। তবে তাঁর আইনজীবী জানিয়েছেন, রায়ের বিরুদ্ধে ফ্রান্সের সর্বোচ্চ আদালতে আপিল করা হবে। ২০০৭ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ছিলেন নিকোলা সারকোজি। সারকোজি বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি তাঁর রাজনৈতিক দলের বিরুদ্ধে আনা আর্থিক দুর্নীতির অভিযোগে যে তদন্ত হচ্ছে তার তথ্য পেতে ম্যাজিস্ট্রেটকে ঘুষ দিতে চেয়েছিলেন। ঘুষ হিসেবে ওই ম্যাজিস্ট্রেটকে একটি উচ্চ বেতনের চাকরি পেতে সহায়তার আশ্বাস দেওয়া হয়েছিল। নিকোলা সারকোজির বিরুদ্ধে আরও মামলাপ্রায় এক দশক তদন্ত করার পর ফ্রান্সের ন্যাশনাল ফিন্যান্সিয়াল প্রসিকিউটরের অফিস গত সপ্তাহে জানিয়েছে, তাঁরা সারকোজির বিরুদ্ধে বিচার শুরুর আবেদন করবে। ২০০৭ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারণার সময় সারকোজি লিবিয়ার নেতা গাদ্দাফির কাছ থেকে কয়েক মিলিয়ন ইউরো নিয়েছেন বলে অভিযোগ আছে। এ ছাড়া ২০১২ সালের নির্বাচনী প্রচারণায় নির্দিষ্ট সীমার দ্বিগুণ খরচ করায় সারকোজিকে এক বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এই রায়ের বিরুদ্ধেও আপিল করেছেন সারকোজি। এ বছরের নভেম্বরে সেই বিচার প্রক্রিয়া আবার শুরু হবে। ফ্রান্সে সাবেক কোনো প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আগেও উঠেছে। সাবেক প্রেসিডেন্ট জ্যাক শিরাক ২০১১ সালে আদালতে দোষী সাব্যস্ত হয়েছিলেন। তবে শুধু দুই বছরের স্থগিত কারাদণ্ড হওয়ায় সরাসরি কারাবরণ করতে হয়নি তাঁকে। Great)

Check Also

গাজীপুর সিটি নির্বাচন: লাঙলের প্রার্থীর ইশতেহার ঘোষণা

গাজীপুর সিটি করপোরেশনকে একটি পরিকল্পিত নগর হিসাবে গড়ে তোলার অঙ্গীকার করে ইশতেহার ঘোষণা করেছেন সিটি …