বিয়ের অনুষ্ঠানের জন্য গাভী কেনা নিয়ে তর্ক, থাপ্পরে বৃদ্ধের মৃত্যু

বিয়ের অনুষ্ঠানের জন্য গাভী কেনা নিয়ে তর্ক, থাপ্পরে বৃদ্ধের মৃত্যু

নরসিংদীর রায়পুরায় ভাগ্নির বিয়েতে মেহমানদের খাওয়ানোর জন্য আনা একটি গাভী (গাই গরু) নিয়ে রসিকতার জেরে তর্কে জড়িয়ে প্রতিপক্ষের থাপ্পরে আবু কালাম (৫০) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার রাতে উপজেলার অলিপুরা উত্তরপাড়া এলাকায় হায়দার আলীর মুদি দোকানের সামনে এ ঘটনা ঘটে। নিহত আবুল কালাম একই এলাকার মৃত নুর চাঁন মিয়ার ছেলে ও পেশায় একজন কৃষক।

পারিবারিক ও স্থানীয় সূত্র জানায়, আগামী সোমবার আবু কালামের এক ভাগ্নির বিয়ে। ওই বিয়েতে কনে ও বরপক্ষের মেহমানদের খাওয়ানোর জন্য একটি গাভী কেনেন তার ভগ্নিপতি। গত রাতে এশার নামাজ শেষে বাড়ির পাশে হায়দার আলীর দোকানে চা খেতে যান কালাম। ওই সময় সেখানে ছিলেন একই এলাকার মৃত সোলেমান মিয়ার ছেলে জয়ধর আলীসহ আরো তিন থেকে চারজন উপস্থিত ছিলেন।
ওই সময় সবার সামনেই বিয়ের জন্য আনা ওই গরু নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করছিলেন জয়ধর। গাভীর কথা জানাজানি হলে ভগ্নিপতির ইজ্জত যাবে ভেবে জয়ধরকে এ ধরনের সমালোচনা না করতে বারণ করেন তিনি। এতে তার প্রতি ক্ষিপ্ত হন জয়ধর। এ নিয়ে দুজনের কথা কাটাকাটি হয়। এরই জেরে কালামের কান বরাবর সজোরে থাপ্পড় মারেন জয়ধর।

এতে তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। পরে তার ভাই ইমান আলীসহ চার থেকে পাঁচজন মিলে কালামকে ঘিরে ধরে শরীরের বিভিন্ন স্থানে কিল-ঘুষি ও লাথি দেন। খবর পেয়ে স্বজনরা গিয়ে তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় এক পল্লী চিকিৎসকের কাছে নেওয়ার পথে মৃত্যু হয় তার। এ ঘটনার পর ঘরে তালা দিয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়েছেন অভিযুক্ত জয়ধর আলীসহ তার পরিবার ও জড়িত বাকি ব্যক্তিরা।

সহকারী পুলিশ সুপার (রায়পুর সার্কেল) সত্যজিৎ কুমার ঘোষ বলেন, বিয়ের অনুষ্ঠানে মেহমানদের খাওয়ানো জন্য আনা গরু নিয়ে একটি দোকানে দুজনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে প্রতিপক্ষের থাপ্পড়ে কালাম নামে ওই ব্যক্তির মারা যান। এ ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের আইনের আওতায় আনা হবে। তবে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো লিখিত অভিযোগ পাননি।

বিডি প্রতিদিন/হিমেল

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© All rights reserved © 2017 RTNBD.net